ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড (Manchester United)

    গত সপ্তাহে চিরপ্রতিদ্বন্দী ম্যানচেস্টার সিটির কাছে ৪-১ গোলে নাকানিচুবানি খাওয়ার পর রেড ডেভিলরা এবার তাদের মাঠে টটেনহ্যামকে স্বাগত জানাতে যাচ্ছে। সিটির সাথে ম্যাচটিতে হারের কারণে রেড ডেভিলদের আত্মবিশ্বাসে বেশ বড় একটি দাগ পড়ে যাওয়ার কথা। অধিকন্তু, তারা এটিও জানে যে তারা পরের মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লীগে খেলার দৌড়ে এখনো অনেকটা এগিয়ে, এবং টটেনহ্যামের বিরুদ্ধে ম্যাচটিতে ভালো ফলাফল তাদের সিজনকে আবার ঠিক দিকে ধাবিত করবে।

    গত সপ্তাহে এতিহাদ স্টেডিয়ামে ম্যান সিটির বিপক্ষে ডার্বি ম্যাচটিতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের দলের বাইরে ছিলেন বেশ কিছু তারকা খেলোয়াড়, যার মধ্যে রয়েছেন ডিফেন্ডার লুক শ ও রাফায়েল ভারান (দু’জনই কভিড পজিটিভ), এবং ফরোয়ার্ড এডিনসন কাভানি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো (দু’জনই ইনজুরিতে)। শুক্রবার তার প্রেস কনফারেন্সে ইউনাইটেড ম্যানেজার রালফ রাঙনিক এ ব্যাপারে সর্বশেষ তথ্য দিতে পারেন।

    টটেনহ্যাম (Tottenham)

    বিগত কয়েক সপ্তাহে টটেনহ্যাম ভক্তরা এক ধরণের রোলার কোস্টার রাইডের মধ্য দিয়েই গিয়েছেন। স্পার্স দলটি দুই সপ্তাহ আগেই ম্যান সিটিকে রোমাঞ্চকরভাবে হারালেও গত সপ্তাহেই তারা রেলিগেশন ফেভারিট বার্নলির কাছে হেরে গিয়েছে। তারপর তারা লিডস ইউনাইটেডকে অনেক বড় ব্যবধানে হারালেও তারপরই আবার এফএ কাপে মিডলসবোরোর কাছে হেরে গিয়েছে। সেই ধারাটি বজায় রেখে ঠিক পরের ম্যাচেই আবার এভারটনকে তারা ৫-০ গোলে হারিয়েছে। তাই, এটি অনুধাবন করা প্রায় অসম্ভব যে এই শনিবারে কোন টটেনহ্যাম দলকে আমরা দেখতে পাব।

    ইউনাইটেডের মতই টটেনহ্যামও পরবর্তী সিজনের চ্যাম্পিয়নস লীগের পজিশনগুলোর জন্য লড়াইয়ে লিপ্ত রয়েছে। এজন্যই এই ম্যাচটির তাৎপর্য আরো বেশি। গত দুই বছর ধরে চ্যাম্পিয়নস লীগে তাদের অনুপস্থিতি স্পার্স ভক্তদেরকে ক্ষুব্ধ করে তুলেছে, এবং খেলোয়াড়দেরকেও করে তুলেছে আরও বেশি ক্ষুধার্ত। ম্যাচটির আগে সফরকারীদের দলে শুধু একটিই নতুন ইনজুরি সমস্যা, সেটি হচ্ছে রায়ান সেসেনিওঁকে নিয়ে, যার কিনা একটি পেশী সমস্যা ধরা পড়েছে। তবে ডিফেন্ডার জ্যাফেট ট্যাংগাংগা এবং মিফগিল্ডার অলিভার স্কিপ অবশ্য আগে থেকেই ইঞ্জুরিতে, এবং তারা অপেক্ষাকৃত বেশি সময়ের জন্য মাঠের বাইরে থাকবেন।

    পড়ুন:  টটেনহ্যাম বনাম ব্রাইটন প্রিভিউ

    প্রেডিকশন (Prediction)

    ওল্ড ট্রাফোর্ডে স্পার্সদের গত সফরটি ছিল তাদের জন্য বেশ স্মরণীয়, কারণ সেই ম্যাচটিতে তারা ইউনাইটেডকে ৬-১ গোলে ধরাশয়ী করেছিল। কিন্তু সেটিই ছিল এই দুই দলের মধ্যকার গত ৬ ম্যাচে টটেনহ্যামের প্রথম জয়। যদিও উভয় দলই বর্তমান সময়ে মিশ্র প্রকৃতির পারফর্মেন্স উপহার দিচ্ছে, আমাদের মনে হয় আমরা একটি শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচ উপভোগ করতে চলছি, যেহেতু তাদের উভয়েরই পয়েন্টগুলি খুব দরকার। আমার মতে দুই দলই খুব অ্যাটাকিং ফুটবল খেলবে, কিন্তু সাথে সাথে ডিফেন্সের অক্ষমতার কারণে একের অধিক গোলও খাবে।

     

    ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ২ – ২ টটেনহ্যাম হটস্পার্স

    টটেনহ্যাম +০.২৫ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

    ২.৭৫ গোলের উর্ধ্বে

     

    Share.
    Leave A Reply