ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড (West Ham United)

গত মৌসুমে হ্যামার্স খ্যাত ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড খুবই ফলপ্রসূ সময় পার করেছে, এবং এবার তারা তাদের সেই পারফর্মেন্স এর উপর আরো উন্নতি করার চেষ্টাই করবে।

সবশেষ ২০২১-২২ মৌসুমে উয়েফা ইউরোপা লীগে অনেক ভালো খেলার ফলে এবং সেমি ফাইনাল পর্যায়ে পৌঁছানোর ফলে সিজনের শেষের দিকে তারা ঘরোয়া লীগে ততটা মনোনিবেশ করতে পারেননি। তবে, তার পরেও ডেভিড ময়েসের দূরত্ব যোদ্ধারা আগামী মৌসুমের জন্য উয়েফা কনফারেন্স লীগে ঠিকই জায়গা করে নিয়েছেন।

তবে, যে কারণে ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড এবং তাদের ভক্ত সমর্থকরা সবচেয়ে বেশি খুশি হবেন তা হল যে, তাদের তারকা খেলোয়াড় ডেক্লান রাইস কমপক্ষে আরো একটি মৌসুম লন্ডন স্টেডিয়ামেই কাটাবেন। বহু দিন ধরেই এমন অনেক গুজব শোনা যাচ্ছে যে, ইংলিশ এই মিডফিল্ডার ইংল্যান্ডেরই কোন একটি বড় ক্লাবে অনেক অর্থের বিনিময়ে যোগ দিতে যাচ্ছেন। তবে তেমন কোনকিছুই বাস্তবে রূপ নেয়নি।

স্কটিশ ম্যানেজার ডেভিড ময়েস ওয়েস্ট হ্যামের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই দলটির মধ্যে একটি প্রতিযোগিতামূলক ভাব তৈরি হয়েছে। রেলিগেশনের দ্বারপ্রান্ত থেকে তুলে এনে তাদেরকে এখন নিয়মিত ইউরোপে খেলার সুযোগ করে দিয়েছেন এই ময়েসই। এমন কৃতিত্বের মাধ্যমে তিনি তার নিন্দুকদের মুখে খুব ভালো করে কালি মাখিয়ে দিতেও সক্ষম হচ্ছেন।

জ্যারোড বাওয়েন, পাবলো ফরনাল্স, মিকাইল এন্তোনিও, এবং ম্যানুয়েল ল্যানজিনি’র মত ওয়েস্ট হ্যাম এর অনেক খেলোয়াড়ই গত মৌসুমে অসাধারণ পারফর্ম করেছিলেন, এবং নতুন মৌসুমেও তারা চাইবেন তাদের সেই ফর্মটি ধরে রাখতে।

চলতি ট্রান্সফার উইন্ডোতে ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড বেশ কিছু নতুন সাইনিংও সম্পন্ন করেছে, যার মধ্যে অন্যতম হল জিয়ানলুকা স্কামাকা’র সাইনিংটি, যাকে তারা ইতালিয়ান ক্লাব ছাছুয়োলো থেকে ৩৫.৫ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে কিনেছেন। ম্যানচেস্টার সিটি’র বিরুদ্ধে সিজনের প্রথম ম্যাচে আশা করা হচ্ছে এই উদীয়মান নতুন স্ট্রাইকার ওয়েস্ট হ্যামের হয়ে মাঠে নামবেন, এবং দলটির অ্যাটাকিং লাইনের নেতৃত্ব দিবেন। এছাড়াও তারা ফরাসি ক্লাব রেনেঁ থেকে ৩০ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে কিনেছেন ডিফেন্ডার নায়েফ আগুয়ার্ডকে, এবং স্থায়ী চুক্তিতে দলে এনেছেন গত বছর ক্লাবটিতে লোনে থাকা ফরাসি গোলকিপার আলফন্স আরিয়োলাকে।

পড়ুন:  ব্রেন্টফোর্ড বনাম ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড (Brentford Vs West Ham United) 10

অধিকন্তু, নতুন মৌসুমের শুরুটি তাদের জন্য এর চেয়ে বেশি কঠিন হতে পারতো না। হ্যামার্সরা তাদের নতুন মৌসুমের পর্দা উন্মোচন করবেন লন্ডন অলিম্পিক স্টেডিয়ামে বর্তমান প্রিমিয়ার লীগ চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি’র বিরুদ্ধে ম্যাচটি দিয়ে। হ্যাঁ, পাহাড়সম এই কাজটি করা তাদের জন্য খুবই কষ্টসাধ্য হবে।

 

ম্যানচেস্টার সিটি (Manchester City)

ম্যানচেস্টার সিটি, অর্থাৎ ইংল্যান্ডের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা হলেন তর্ক সাপেক্ষে দেশটির ফুটবলের সবচেয়ে বিপজ্জনক ক্লাব বা দল, যাদের মুখোমুখি হলে যেকোন দলই কিছুটা ভয়ে ভয়ে থাকে। যদিও গত বছর প্রিমিয়ার লীগ শিরোপা নিজেদের হাতে রাখতে তাদের বেশ বেগ পেতে হয়েছিল, তারপরও পুরো মৌসুম জুড়ে তারা যেমন ধৈর্য্যশীলতা, ধারাবাহিকতা, এবং বুদ্ধিদীপ্ততার পরিচয় দিয়েছে, তা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার।

নতুন মৌসুমে তাদের যাত্রা অবশ্য ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে, এফএ কমিউনিটি শিল্ডের মধ্য দিয়ে। লেস্টারের কিং পাওয়ার স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে লিভারপুলের কাছে তারা খুব সহজেই ৩-১ গোলে পরাজিত হয়। তবে, ম্যাচের ফলাফলের চেয়েও যে জিনিসটি পেপ গার্দিওলাকে বেশি ভাবাবে তা হলে গোলের সামনে তাদের নতুন সাইনিং আর্লিং ব্রাউত হাল্যান্ডের তীক্ষ্ণতার অভাব। ম্যাচটিতে তিনি বেশ কিছু সহজ সুযোগ হাতছাড়া করেছেন।

বরুশিয়া ডর্টমুন্ড থেকে বিশাল সাইনিং আর্লিং হাল্যান্ডকে দলে নেওয়ার পাশাপাশি ৪২ মিলিয়ন পাউন্ডেরও বেশি অর্থের বিনিময়ে তারা লিডস ইউনাইটেড থেকে কিনেছেন ইংল্যান্ড জাতীয় দলের নিয়মিত মিডফিল্ড খেলোয়াড় কেলভিন ফিলিপ্সকে। এই অভিজ্ঞ মিডফিল্ডার ম্যান সিটির ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডে ফার্স্ট চয়েজ খেলোয়াড় রদ্রিকে কিছুটা চাপের মধ্যেও রাখতে পারবেন, আবার মাঝে মাঝে দুইজন একসাথে খেলে একে অপরকে সাহায্যও করতে পারবেন।

অবশ্য, লিভারপুলের বিপক্ষে তাদের পরাজয়টি দেখে বোঝা গিয়েছে যে, নতুন মৌসুম পুরো দমে শুরু হওয়ার পূর্বেই দলটির উপর পেপ গার্দিওলা’র আরো কিছুটা কাজ করা দরকার, এবং দলটি এখনো তার সম্পূর্ণ শার্পনেস এ পৌঁছাতে পারেনি। হ্যাঁ, তাদের নতুন সাইনিংদের কিছুটা সময় অবশ্যই দরকার নতুন লীগে খাপ খাইয়ে নেওয়ার জন্য। কিন্তু, প্রিমিয়ার লীগের মত একটি কঠোর (শারিরিক দিক দিয়ে) লীগে মানিয়ে নেওয়ার জন্য খুব বেশি সময়ও কি তারা পাবেন?

পড়ুন:  চেলসি বনাম বার্নলি প্রিমিয়ার লিগের পূর্বরূপ

পেপ গার্দিওলা’র ক্রীড়া কৌশল বোঝার জন্য যে তার অধীনে কিছুদিন শুধু কাজ করতে হয় তা নয়, বরং তার অধীনে বিভিন্ন ধরণের ম্যাচে অংশগ্রহণ করতে হয়, যাতে করে একজন খেলোয়াড় বুঝতে পারেন যে, “হ্যাঁ, আমাকে এমন পরিস্থিতিতে এভাবেই খেলতে হবে।” লন্ডন অলিম্পিক স্টেডিয়ামে সিটিজেনদের নতুন মৌসুমের প্রথম ম্যাচটির মধ্য দিয়ে অবশ্য পেপ এর দলের আরো কিছু দূর্বলতা বের হয়ে আসতে পারে।

সিজনের প্রথম ম্যাচটিতেই তারা এমন এক দলের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে, যারা কি না তাদের দূর্ভেদ্য ডিফেন্সের জন্য বেশি জনপ্রিয় — ওয়েস্ট হ্যাম। সিটিজেনদের অবশ্য খ্যাতি রয়েছে দরকার এর সময় এবং ওয়েস্ট হ্যামের মত ‘হার্ড টু ওপেন আপ’ দলের বিরুদ্ধেও গোলের প্রচুর সুযোগ তৈরি করার। তবে, তাদের দলের কিছু গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় সিটি ছেড়ে অন্যান্য দলে ইতিমধ্যে পাড়িও জমিয়েছেন, যার মধ্যে অন্যতম হলেন রাহিম স্টার্লিং, গ্যাব্রিয়েল জেসুস, এবং ওলেক্সান্ডার জিনচেঙ্কো, প্রমুখ। তবে, এখন পুরানো খেলোয়াড়দের বিক্রয় করে নতুন খেলোয়াড়দের দলে ভিড়ালেও সেসকল খেলোয়াড়রা কত তাড়াতাড়ি গোলস্কোরিং ফর্মে আসতে পারবেন সে ব্যাপারে সন্দেহ কিন্তু থেকেই যায়।

 

প্রেডিকশন (Prediction)

তবে যত যাই হোক না কেন, আমরা মনে করি ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ম্যানচেস্টার সিটি এই ম্যাচটিতে কোন না কোনভাবে জয়ের একটি পথ খুঁজে নিবেই, যদিও তা করতে তাদের প্রাথমিকভাবে কিছুটা বেগ পেতে হতে পারে।

ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড ০ – ২ ম্যানচেস্টার সিটি

ম্যানচেস্টার সিটি ১.৫ গোলের উর্ধ্বে

ম্যানচেস্টার সিটি -১.৫০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

Share.
Leave A Reply