২০২২-২৩ প্রিমিয়ার লীগ মৌসুমের প্রথম বড় ম্যাচের ভেন্যু হতে চলেছে স্ট্যাম্ফোর্ড ব্রিজ, যখন লন্ডন রাইভাল টটেনহ্যাম হটস্পার্সকে নিজেদের মাঠে স্বাগত জানাবে থমাস টুখেলের চেলসি। এই দুই দলের মধ্যকার প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়তো নর্থ লন্ডন ডার্বির (স্পার্স বনাম আর্সেনাল) মত হিংস্র নয়, তবুও তাদের মধ্যকার সর্বশেষ কয়েকটি ম্যাচ এর ভিত্তিতে বিচার করলে, চেলসি ও স্পার্স এর মধ্যকার দ্বৈরথটি সত্যিই খুবই আক্রমণাত্মক এবং গতিশীল হবে বলেই মনে হচ্ছে।

উভউ দলই চাইবে মৌসুমের প্রথম গেমউইকে তাদের জয়ের পর একটি জয়ের ধারা তৈরি করতে। প্রথম উইকেন্ডে গত শনিবার চেলসি গুডিসন পার্ক থেকে একটি ১-০ স্কোরলাইন ও তিনটি পয়েন্ট নিয়ে ফেরত আসতে সক্ষম হয়। অন্য দিকে, টটেনহ্যাম হটস্পার্স নিজেদের মাঠে রাল্ফ হ্যাসেনহুটল এর সাউথ্যাম্পটন দলকে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করতে সমর্থ্য হয়।

এছাড়া, এমনটিও আশা করা যায় যে, এই দুইটি দলই এবার শীর্ষ চারের লড়াইয়ে লিপ্ত থাকবে। এই ম্যাচটির মাধ্যমে এটি বেশ ভালোভাবেই বোঝা যাবে যে কোন দলটি আসলেই এবারের মৌসুমে শিরোপা প্রত্যাশী রূপে আবির্ভূত হওয়ার সক্ষমতা রাখে। উভয় দলই তাই চেষ্টা করবে এই ম্যাচটিতে নিজেদের ছাপ রেখে যেতে।

সকল প্রতিযোগিতায় এই দুই দলের মধ্যকার সর্বশেষ ৩টি ম্যাচের প্রত্যেকটিতেই জয় পেয়েছে থমাস টুখেলের সৈন্যরা। কিন্তু, এবারের টটেনহ্যাম হটস্পার্স দলটি আগের থেকে অনেকটাই আলাদা, এবং তাদের বিরুদ্ধে জয় ছিনিয়ে আনা মোটেও সহজ হবে না ব্লুস’দের জন্য।

ফর্ম বিবরণীঃ চেলসি (Form Guide: Chelsea)

চেলসি তাদের মৌসুমের পর্দা উন্মোচনকারী ম্যাচে এভারটনকে কোনভাবেই উড়িয়ে দিতে পারেনি, তবে স্পষ্টত তারাই ছিল ম্যাচটির সেরা দল। পেনাল্টি স্পট থেকে জর্জিনহো’র করা গোলটির উপর ভর করেই চেলসি ম্যাচটি জিতে নেয় ১-০ গোলের ব্যবধানে। আক্রমণভাগে ব্লুস’দের খেলায় একটি অপরিপাটি ও অগোছালো ভাব পরিলক্ষিত হয়েছিল, তবে তাদের সমর্থকরা আশা করবে যেন টটেনহ্যাম হটস্পার্স এর মত দলের বিপক্ষে খেলার কারণে সেই অপরিপাটি ভাবটি কেটে যায়।

পড়ুন:  এভারটন বনাম অ্যাস্টন ভিলা: টেবিলে আরও উপরে উঠতে টফি

তবে, চেলসি’র সামনে একটি বিশাল বড় পরীক্ষাই অপেক্ষা করছে, কারণ তাদেরকে দমিয়ে রাখতে হবে হ্যারি কেইন, সন হিউং মিন, এবং ডেয়ান কুলুসেভস্কি’র মত ইন-ফর্ম ও বিপজ্জনক খেলোয়াড়দের। স্পার্স এর বিরুদ্ধে চেলসি’র নতুন ফরোয়ার্ড রাহিম স্টার্লিং এর রেকর্ড অবশ্য বেশ চমকপ্রদ। তাই, তিনি চাইবেন তার এই পরিচিত ও প্রিয় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধেই চেলসি’র হয়ে নিজের গোলের খাতাটি খুলতে।

 

ফর্ম বিবরণীঃ টটেনহ্যাম হটস্পার্স (Form Guide: Tottenham Hotspurs)

গত ম্যাচে সাউথ্যাম্পটনের বিরুদ্ধে ৪-১ গোলের স্টেটমেন্ট ভিত্তিক জয়টির পর সারা বিশ্বের ফুটবল প্রেমীদের নজর এখন এন্তোনিও কন্তে’র স্পার্স দলের উপর। এন্তোনিও কন্তে’র দলই প্রথমে গোল হজম করেছিল উক্ত ম্যাচটিতে। তবে রায়ান সেসেনিওন এর সমতাসূচক গোলটির পর থেকেই তারা ম্যাচটিতে পূর্ণ ডমিনেন্স বজায় রাখতে সমর্থ্য হয়, এবং স্কোরশিটে হ্যারি কেইন ও সন হিউং মিন এর উপস্থিতি ছাড়াই ৪টি গোল করে বসে। ইতালিয়ান এই ম্যানেজারকে এবারের ট্রান্সফার উইন্ডোতে দল সাজানোর জন্য প্রচুর অর্থ প্রদান করা হয়, যা তিনি কাজেও লাগিয়েছেন। তবে, স্পার্স কর্তৃপক্ষ ও সমর্থকদের প্রত্যাশার চাপ তিনি ঠিকমত নিতে পারেন কি না তাই এখন দেখার বিষয়।

২০২২ সালের শুরু থেকেই টটেনহ্যাম হটস্পার্স হল ইউরোপের সবচেয়ে ধারাবাহিক দলগুলির একটি, এবং গত মৌসুমের শেষের দিকে তাদের অসাধারণ ফর্মটিকে তারা নতুন মৌসুমে এসেও ধরে রাখতে পেরেছে বলেই মনে হচ্ছে।

চেলসি অবশ্যই তাদের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জই উত্থাপন করবে, তবে যেহেতু তাদের তিনজন ফার্স্ট চয়েজ ফরোয়ার্ড এর মধ্যে সকলেই ভালো ফর্মে রয়েছেন, সেহেতু ম্যাচটিতে তাদেরকে কিছুটা হলেএ এগিয়ে রাখতেই হবে। এছাড়া, অনেকেই স্পার্সকে এবারের মৌসুমের শিরোপার লড়াইয়ের কালো ঘোড়া বলেও আখ্যায়িত করছেন। যেহেতু নতুন মৌসুমে হ্যারি কেইন তার গোলের খাতাটি এখনো খুলতে পারেননি, তাই এই ম্যাচটিতে তিনি জানপ্রাণ দিয়ে সেই অধরা গোলটি পাবার চেষ্টা করবেন সেটিই স্বাভাবিক।

পড়ুন:  চেলসি বনাম বার্নলি প্রিমিয়ার লিগের পূর্বরূপ

 

প্রেডিকশন (Prediction)

এত বড় মাপের একটি ম্যাচের পূর্বাভাস দেওয়া সত্যিই খুব কঠিন একটি কাজ, তাও আবার মৌসুমের এমন প্রাথমিক পর্যায়ে বসে। তবে, এটি এখন বেশ স্পষ্ট যে, চেলসি এখনো তাদের দলটি গুছিয়ে নিতে ব্যস্ত, যেখানে টটেনহ্যাম হটস্পার্স তাদের গত মৌসুমের ভালো ফর্ম এখনো ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে।

এই ম্যাচটি খুবই ক্ষীণ ব্যবধানে নির্ধারিত হবে বলেই আমরা মনে করছি, তবে যেহেতু স্পার্সের আক্রমণভাগ খুবই ভালো ফর্মে রয়েছে, তাই এই লন্ডন ডার্বিতে তাদেরকেই এগিয়ে রাখতে হয়। সাম্প্রতিক সময়ে রমেলু লুকাকু ও টিমো ভার্নারকে যথাক্রমে ইন্টার মিলান ও আরবি লাইপজিগ এর নিকট বিক্রি করে দেওয়ার পর এখন চেলসি’র নিকট কোন স্বভাবসুলভ স্ট্রাইকারই নেই। এই বিষয়টি তাদের খেলায় নেতিবাভক প্রভাব ফেলতে পারে। রাহিম স্টার্লিংই হবেন ওপেন প্লে থেকে চেলসি’র আক্রমণভাগের মূল চালিকাশক্তি ও কেন্দ্রবিন্দু।

অনেকে বলে থাকেন যে, হ্যারি কেইন আগস্ট মাসে কোন গোল করেন না। কিন্তু, তাদের কথার উপর ভিত্তি করে যদি আপনি মনে করেন যে, ২৯ বছর বয়সী ইংল্যান্ড জাতীয় দলের এই অধিনায়ক এই ম্যাচটিতে চেলসি’র জাল খুঁজে পাবেন না, তাহলে সেটি ঘোর বোকামি হবে। খুবই কম ব্যবধানে হলেও তাই আমরা স্পার্সকেই এই ম্যাচটিতে এগিয়ে রাখবো।

চেলসি ১ – ২ টটেনহ্যাম হটস্পার্স
২.৫ গোলের উর্ধ্বে
চেলসি +১.৫০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

Share.
Leave A Reply