এএফসি বোর্নমাউথ (AFC Bournemouth)

তাদের সর্বশেষ ম্যাচে চেরিস’রা প্রিমিয়ার লীগের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ম্যান সিটি’র নিকট একটি বড়সড় পরাজয়ের শিকার হয়, এবং সেটির পরেও তাদের পরীক্ষা যেন শেষ হওয়ার নামই নিচ্ছে না, কারণ তাদের পরবর্তী ম্যাচ ঘরের মাটিতে একটি ইন-ফর্ম আর্সেনাল দলের বিপক্ষে।

গত সপ্তাহে তারা ম্যানচেস্টারের এতিহাদ স্টেডিয়ামে পাড়ি জমিয়েছিল এটি মাথায় রেখে যে হয়তো কোনভাবে তারা ম্যাচটি থেকে কিছু একটা নিয়ে ঘরে ফিরতে পারবে। তবে, তাদের সেই গুড়ে বালি দিয়ে ম্যানচেস্টার সিটি একটি অসাধারণ পেশাদার পারফর্মেন্স প্রদর্শন করে, এবং তাদেরকে ম্যাচের বেশির ভাগ অংশ জুড়েই শুধু ডিফেন্স করে যেতে হয়। তারপরও ম্যান সিটি সর্বমোট চারটি গোল করতে সক্ষম হয়, যা আরো বেশি হতে পারতো যদি সিটিজেনরা তাদের ফর্মের চূড়ায় থাকতো।

স্কট পার্কার নিশ্চয় ম্যাচটিতে তাদের ক্রীড়াকৌশল নিয়ে কিছুটা হতাশই হয়েছিলেন, কারণ বহু ফুটবল বোদ্ধাই এটি তুলে ধরেছেন যে, চেরিস’দের ডিফেন্সিভ মানসিকতার কারণে সিটি’র জন্য ম্যাচটি জেতা আরো সহজ হয়ে গিয়েছিল।

তাদের পরবর্তী টাস্ক হল একটি পুনঃজ্জীবিত আর্সেনাল দলের বিরুদ্ধে। গানারস’রা বর্তমানে একটি নব্য প্রাপ্ত উদ্দীপনায় উদ্দীপ্ত, এবং এই মুহূর্তে তাদের পথের কাঁটা হতে পারলে স্কট পার্কার নিজের দলের প্রতি খুবই গর্বিত হবেন।

 

আর্সেনাল (Arsenal)

অনেকের মতেই, প্রিমিয়ার লীগের ২০টি দলের মধ্যে আর্সেনালই সবচেয়ে সুখকর ও ফলময় ট্রান্সফার উইন্ডো পার করছে। তাদের সবকটি ট্রান্সফারই ফুটবল প্রেমীদের নজর কেড়েছে, এবং এখন এসে মনে হচ্ছে যে, খেলোয়াড়দের পাশাপাশি দলের সমর্থকরাও ম্যানেজারের ফুটবল দর্শন বুঝতে শুরু করেছেন।

এরই মধ্যে দলের খেলার মানও অনেকটাই উন্নত হয়েছে। দলের খেলোয়াড় ও সমর্থকদের মধ্যে একটি ইতিবাচকতা আবারো ফিরে এসেছে, যা বহুদিন ধরেই অনুপস্থিত ছিল। এটি এখন বলাই যায় যে, আর্সেনাল আবারো শিরোপা জয়ের ধারায় ফিরে আসার জন্যই দিন গুনছে মাত্র।

পড়ুন:  ম্যান সিটি বনাম এভারটন প্রিভিউ

মৌসুমের শুরুতে যদি আপনার মনে সে ব্যাপারে কোন দ্বিধা থেকেও থাকতো, তাদের সর্বশেষ ম্যাচে লেস্টার সিটি’র বিরুদ্ধে তাদের দূর্দান্ত পারফর্মেন্সটি দেখার পর আর আপনার মনে তেমন কোন দ্বিধা থাকার কথা নয়।

এছাড়া, তাদের নতুন স্ট্রাইকার ব্রাজিলিয়ান গ্যাব্রিয়েল জেসুস এবারের ট্রান্সফার উইন্ডোতে ম্যানচেস্টার সিটি থেকে আর্সেনালে যোগ দেওয়ার পর থেকেই অনবদ্য ফর্মে রয়েছেন। গত ম্যাচে তিনি লেস্টারের বিরুদ্ধে দুই দুইটি গোল করে একটি আড়ম্বর হোম ডেব্যু সম্পন্ন করেন।

এরপর আর্সেনাল কোস্ট সাইডে পাড়ি জমাবে একটি সাহসী বোর্নমাউথ দলের মুখোমুখি হওয়ার লক্ষ্যে, যারা কি না গানারস শিবিরে কোন প্রকার ভুলের ফায়দা নেওয়ার জন্যই অপেক্ষায় থাকবে।

 

প্রেডিকশন (Prediction)

এএফসি বোর্নমাউথের সাহসী গেমপ্লে এবং অনবদ্য পাসিং দক্ষতা পূর্ণরূপে প্রকাশের ভালো কোন সুযোগ এখনো দলটি পায়নি। এবং, আর্সেনালের বিপক্ষে তারা তেমনটি করতে পারবে বলে আমরা মনে করি না। রক্ষণাত্মক ভঙিমায় ম্যাচটি খেলে যতটা কমসংখ্যক গোল তারা হজম করতে পারবে, তাদের জন্যই ততটাই লাভ হবে।

এএফসি বোর্নমাউথ ০ – ২ আর্সেনাল

১.৫ গোলের উর্ধ্বে

আর্সেনাল -১.৫০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

Share.
Leave A Reply