এখন যখন আমরা সকলেই দিন গুনছি পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ফুটবল লীগ অর্থাৎ প্রিমিয়ার লীগের নতুন মৌসুমের শুভ সূচনার জন্য, তখন এমন অনেক বিষয়ই রয়েছে যেগুলিএ ব্যাপারে আমরা আমাদের পাঠকদের অবগত করতে চাই। 

এমনি একটি দিক হচ্ছে ফ্যান্টাসি প্রিমিয়ার লীগ বা এফপিএল। এটি হল প্রিমিয়ার লীগের সমর্থকদের জন্য একটি উপায়, লীগটি সম্পর্কে তাদের সাধারণ জ্ঞান পরীক্ষা করার। এখন থেকে শুরু করে মৌসুম শুরু পূর্ব মুহূর্ত পর্যন্ত ফ্যান্টাসি প্রিমিয়ার লীগ ম্যানেজাররা তাদের ১৫ জন খেলোয়াড়ের তালিকা তৈরি করে ফেলবেন। যেহেতু এটি এখন একটি ঐতিহ্যে পরিণত হয়েছে, সেহেতু তারা সকলেই চাইবে প্রথম ম্যাচডে এর আগেই তাদের দলটি সম্পন্ন করে ফেলতে। তবে, তেমনটি করা খুব কঠিন হতে পারে, এবং পরবর্তীতে গিয়ে খুব ক্ষতিকারকও হতে পারে, যদি না সেসকল ম্যানেজাররা কোনপ্রকার দিক নির্দেশনা পায়।

আগামী মৌসুমের প্রিমিয়ার লীগ টিম রোস্টারগুলি থেকে লাখো ম্যানেজাররা তাদের পছন্দের ১৫ জন খেলোয়াড় বেছে নিবেন। তাই আপনার দলটি বানানোর ক্ষেত্রে আপক্নাকে হতে হবে অত্যন্ত সচেতন এবং সুচতুর। বেশ খানিকটা সময়ও আপনাকে সেটির পেছনে ব্যয় করতে হবে। ফ্যান্টাসি প্রিমিয়ার লীগের সবচেয়ে মোক্ষম বিষয়টি হল যে, একই দলে যেমনি অভিজ্ঞ ও এলিট খেলোয়াড়দের রাখতে হবে, ঠিক তেমনি সেই দলে কিছু প্রতিভাবান নতুন ও উদীয়মান খেলোয়াড়দেরও জায়গা করে দিতে হবে। দল তৈরির ক্ষেত্রে ভারসাম্য রক্ষাটাই আপনার ভাগ্য পরিবর্তন করে দিতে পারে।

ফ্যান্টাসি প্রিমিয়ার লীগের ওপেনিং এবং প্রিমিয়ার লীগের নতুন মৌসুমের শুরুর মাঝখানের সময়টা ফ্যান্টাসি ম্যানেজারদের জন্য হয় খুবই আকর্ষণীয়, কারণ এই সময়কালের মধ্যে তারা দলটির উপর নানা রকমের কাজ করতে পারে, যেমন আনলিমিটেড খেলোয়াড় আনা নেওয়া করতে পারেন, ইচ্ছামত কম্বিনেশন পরিবর্তন করে দেখতে পারেন, কমদামী ও বেশি দামী খেলোয়াড়দের সমন্বয় করতে পারেন, এমনকি বিভিন্ন ধরণের ফর্মেশনও তৈরি করে দেখতে পারেন। তবে, সব ধরণের বাছাই ছাঁটাই এর পরে আপনাকে অবশ্যই প্রিমিয়ার লীগ মৌসুম শুরুর আগেই নিজের দলের জন্য চূড়ান্তরূপে ১৫ জন খেলোয়াড় বেছে নিতে হবে।

অধিকন্তু, এটি অনুমান করা খুবই দুঃসাধ্য যে কোন কোন খেলোয়াড়েরা প্রথম ম্যাচডে থেকেই ভালো খেলে আপনাকে অসংখ্য পয়েন্ট এনে দিতে পারবে। যদিও প্রি সিজন এর ফর্মের উপর ভিত্তি করে আপনি আপনার দলটি গঠন করতে পারেন, তবুও প্রিমিয়ার লীগের মত কঠিন লীগে কোনকিছুরই তেমন নিশ্চয়তা নেই। 

গত মৌসুমের প্রিমিয়ার লীগ চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ, অর্থাৎ ম্যানচেস্টার সিটি ও লিভারপুলের জন্য মৌসুমের প্রথম কয়েকটি ম্যাচ বেশ সহজই হবে বলে মনে হচ্ছে। তাদের নিজ নিজ প্রথম পাঁচটি ম্যাচের মধ্যে ম্যানচেস্টার সিটি নিজ মাঠে আমন্ত্রণ জানাবে সদ্য প্রমোটেড দুই দল এএফসি বোর্নমাউথ ও নটিংহ্যাম ফরেস্টকে, আর মার্সিসাইডের দল লিভারপুল তাদের নতুন মৌসুমের শুরুটিই করবে আরেক প্রোমোটেড দল ফুলহ্যামের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে। 

গানারস খ্যাত আর্সেনাল, যারা কি না এবারের ট্রান্সফার উইন্ডোতে বেশ কিছু বিগ-মানি সাইনিং করিয়েছে, এবারের প্রিমিয়ার লীগ মৌসুমের পর্দা উন্মোচন করবে, যখন তারা নর্থ লন্ডন থেকে ছোট্ট পথ অতিক্রম করে ৫ তারিখ রাতে সেলহাস্ট পার্কে ক্রিস্টাল প্যালেসের মুখোমুখি হবে।

পড়ুন:  সর্বকালের সেরা 5টি সবচেয়ে সফল ইংলিশ ফুটবল ক্লাব

উপরের সকল বিষয়কে মাথায় রেখে, এখন আমরা এমন ১০ জন খেলোয়াড় এর একটি তালিকা আপনাদের সামনে তুলে ধরব, যাদেরকে আপনি আপনার ফ্যান্টাসি প্রিমিয়ার লীগ দলে এখনি নির্দ্বিধায় জায়গা করে দিতে পারেন।

 

১. মোহাম্মদ সালাহ্ – £১৩.০ মিলিয়ন (1. Mohamed Salah – £13.0m)

গত চারটি মৌসুম ধরে ফ্যান্টাসি প্রিমিয়ার লীগ ম্যানেজারদের জন্য সবচেয়ে আস্থার নাম হচ্ছে মোহাম্মদ সালাহ্। তবে, যেমনটি আশা করাই সমীচীন, এই মিশরীয় জাদুকরকে দলে নিতে হলে বেশ খানিকটা ক্রেডিট আপনাকে খরচ করতে হবে। অবশ্য আপনাকে এটিও মনে রাখতে হবে যে, দাম তার যতই চড়াও হোক না কেন, এই ২৯ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডকে দলে রাখলে আপনার ক্ষতির চেয়ে লাভ হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি থাকবে।

গত মৌসুমে এই মিশরীয় জাদুকর এফপিএল পয়েন্ট চার্ট এর শীর্ষে ছিলেন, সর্বমোট ২৬৫ পয়েন্ট নিয়ে, যা সত্যিই অনেক বড় একটি সংখ্যা। মৌসুম শুরুর আগেই বেতন বৃদ্ধি হওয়ায় এই ঝাকড়া চুলের খেলোয়াড় লিভারপুলের হয়ে আগামী মৌসুমেও মাঠ কাঁপাবেন বলেই ধারণা করা যাচ্ছে।

 

২. সন হিউং মিন – £১২.০ মিলিয়ন (2. Son Heung Min – £12.0m)

দক্ষিণ কোরীয় এই জাদুকরও হলেন ফ্যান্টাসি প্রিমিয়ার লীগ ম্যানেজারদের জন্য নিশ্চিতরূপে একটি পয়েন্ট এর খনি। এই উইংগারের দামও এবার ফ্যান্টাসি লীগে কিছুটা বেড়েছে, এবং তার পেছনে খুবই যথাযোগ্য কারণও রয়েছে।

গত মৌসুমে ২৩টি গোল করে গোল্ডেম বুট জেতার পাশাপাশি একই মৌসুমে ১৮টি এসিস্ট অর্জন করতেও সক্ষম হোন সন। বছরের পর বছর ধরে এই ২৯ বছর বয়সী সুপারস্টার বিশ্বব্যাপী ফুটবল প্রেমীদেরকে তার জাত চিনিয়েছেন, এবং তাকে দলে নিতে হলে আপনাকে খরচ করতে হবে £১২.০ মিলিয়ন।

টটেনহ্যাম হটস্পার্স এর এই তারকা ফুটবলারকে দলে নিলে আপনি একটি বাড়তি সুবিধা পাবেন, এবং সেটি হল যে, তিনি ম্যানচেস্টার সিটি বা লিভারপুলের খেলোয়াড়দের চেয়ে বেশি গেমটাইম পেয়ে থাকেন, কারণ পেপ গার্দিওলা ও ইয়ুর্গেন ক্লপ তাদের নিজ নিজ দলে প্রায়ই রোটেশন করে থাকেন, যার ফলে কোন ম্যাচে কোন খেলোয়াড় খেলবেন তা অনুমান করাও কঠিন হয়ে পড়ে। তার গত মৌসুমের পারফর্মেন্স এর উপর ভিত্তি করে এটি বলাই যায় যে, এবারের মৌসুমে অধিকাংশ এফপিএল ম্যানেজারদের দলেই হিউং মিন সন জায়গা করে নিবেন।

 

৩. আর্লিং হাল্যান্ড – £১১.৫ মিলিয়ন (3. Erling Haaland – £11.5m)

ম্যানচেস্টারের নীল প্রান্তের দলটি সবসময়ই গোলের সামনে খুবই চমৎকার প্রদর্শন করে এসেছে, এমনকি যখন তাদের দলে কোন স্ট্রাইকার ছিল না তখনও। এবারের গ্রীষ্মকালীন ট্রান্সফার উইন্ডোতে অবশ্য তারা একজন স্ট্রাইকারকে দলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। এবং, যেমন ভাবনা তেমনি কাজ। তারা বর্তমান সময়ের সবচেয়ে প্রতিভাবান যুবা স্ট্রাইকার আর্লিং হাল্যান্ডকে দলে ভিড়িয়েও ফেলেছে।

পড়ুন:  প্রিমিয়ার লিগে লুটন টাউন থেকে কী আশা করা যায়

যদিও প্রিমিয়ার লীগে সদ্য পা রাখা একজন খেলোয়াড়কে সরাসরি আপনার এফপিএল দলে জায়গা করে দেওয়াটা যে কেউই একটি ভালো সিদ্ধান্ত মনে করবে না, তবুও আপনার বুঝতে হবে যে, এখানে আমরা এমন একজন খেলোয়াড়ের কথা বলছি, যিনি কি না কয়েক বছরের মধ্যেই একজন কিংবদন্তি ফুটবলারে পরিণত হতে চলেছেন। তিনি গোলের সামনে তার অসামান্য দক্ষতার প্রমাণ দিয়েছেন অস্ট্রিয়ান বুন্দেসলিগা, জার্মান বুন্দেসলিগা এবং চ্যাম্পিয়নস লীগ ফুটবলে অসংখ্য গোল করার মাধ্যমে। এছাড়া বলা যায় যে, বর্তমানে বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ মিডফিল্ডার কেভিন ডি ব্রুয়না এই ২২ বছর বয়সী স্ট্রাইকারের ভরণপোষণের দায়িত্ব নিবেন। তাই, তার জন্য গোলের সুযোগ তৈরির ক্ষেত্রে কোনই ঘাটতি হবে না, এ ব্যাপারে আমরা নিশ্চিত। £১১.৫ মিলিয়ন এর বিনিময়ে তিনি আপনার দলের জন্য একজন বার্গেইন স্ট্রাইকার হতে পারেন।

 

৪. হ্যারি কেইন – £১১.৫ মিলিয়ন (4. Harry Kane – £11.5m)

এই ইংলিশ সুপারস্টার হলেন ফ্যান্টাসি প্রিমিয়ার লীগ ম্যানেজারদের জন্য খুবই পছন্দের একজন খেলোয়াড়। যদিও গত মৌসুমের শুরুতে তিনি প্রায় স্পার্স ছেড়েই বসেছিলেন, তবুও মৌসুমজুড়ে তিনি ক্লাবটির হয়ে নিজের জানপ্রাণ দিয়েই লড়েছেন, এবং বিনিময়ে আশানুরূপ ফলও পেয়েছেন। তিনি গত মৌসুমে ফ্যান্টাসি প্রিমিয়ার লীগে ১৯২ পয়েন্ট এনে দিয়েছিলেন, যার মধ্যে ছিল সর্বমোট ২৮টি গোল ইনভল্ভমেন্ট (১৭টি গোল, ১১টি এসিস্ট)।

এন্তোনিও কন্তে স্পার্সের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই হ্যারি কেইন তার দলের জন্য আরো বেশি মোক্ষম ভূমিকা পালন করতে শুরু করেন, এবং এখন আর তার দল ছাড়া নিয়ে কোনই গুজব শোনা যায় না। তাই আর্লিং হাল্যান্ড এর পাশাপাশি তিনি এফপিএল ম্যানেজারদের জন্য একটি অসাধারণ ফরোয়ার্ড অপশন।

প্রচুর গোলে জড়িত থাকা এবং গোলের সামনে তার অসাধারণ দক্ষতার কারণে বলা যায় যে, £১১.৫ মিলিয়ন মূল্য তার জন্য খুব একটা বেশিও নয়। তবে, এটিও ঠিক যে, তিনি সাধারণত মৌসুমের শুরুটা কিছুটা ধীরগতিতে করে থাকেন। তাই আপনি চাইলে কয়েক সপ্তাহ যাচাই করে দেখে তারপর তাকে দলে নিতে পারেন।

 

৫. রাহিম স্টার্লিং – £১০.০ মিলিয়ন (5. Raheem Sterling – £10.0m)

ইংলিশ এই উইংগার সম্প্রতি ম্যানচেস্টার সিটি থেকে ওয়েস্ট লন্ডনের ক্লাব চেলসিতে একটি দূর্দান্ত ট্রান্সফার সম্পন্ন করেছেন। দ্রুতগতির এই ফুটবলার নিশ্চয়ই এখন অনেক এফপিএল ম্যানেজারের পরিকল্পনারই অংশ হবেন, কেননা চেলসিতে তিনি অবশ্যই প্রতিটি ম্যাচেই মূল একাদশে থাকবেন।

২০১৭-১৮ মৌসুম থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত এই লেফট উইংগারের গোল ইনভল্ভমেন্ট এর রেকর্ড খুবই দূর্দান্ত। এ সময়কালে তিনি গড়ে প্রতি মৌসুমে ১৬টি করে গোল ও ১১টি করে এসিস্ট করতে সক্ষম হয়েছেন। গত মৌসুমে ম্যানচেস্টার সিটি দলে শুধুমাত্র জাঁও ক্যান্সেলো এবং কেভিন ডি ব্রুয়নার এফপিএল পয়েন্টই স্টার্লিং এর চেয়ে বেশি ছিল।

 

৬. ব্রুনো ফার্নান্দেজ – £১০.০ মিলিয়ন (6. Bruno Fernandez – £10.0m)

অত্যন্ত প্রতিভাবান এই পর্তুগিজ প্লেমেকার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে কাটানো তার প্রথম দুইটি মৌসুমে যে পরিমাণে ভালো খেলেছিলেন, গত মৌসুমে তার পারফর্মেন্স লেভেল সেটির আশেপাশেও ছিল না। ২০২০-২১ মৌসুমে এফপিএল এ ২৪৪ পয়েন্ট এনে দিলেও, গত মৌসুমে সেটি নেমে দাঁড়ায় মাত্র ১৫১ তে। 

পড়ুন:  আর্জেন্টিনা ১ - ২ সৌদি আরবঃ বিশ্বকাপের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় অঘটনগুলির একটি

তবে, গত মৌসুমে পর্তুগিজ এই তারকার এফপিএল রেকর্ডে ভাঁটা পড়ার আরেকটি বড় কারণ হলেন তারই স্বদেশী আরেকজন সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেওয়াটা। তার যোগদানের ফলে ইউনাইটেডের সকল আক্রমণই তাকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছিল, যার ফলে ফার্নান্দেজ এর গোল করার সুযোগও অনেকটাই কমে গিয়েছিল। এবার যেহেতু ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর ইউনাইটেড ত্যাগের সম্ভাবনাই বেশি, সেহেতু ব্রুনো ফার্নান্দেজ যেকোন এফপিএল ম্যানেজারের জন্যই একজন শীর্ষ বাছাই হবেন বলেই ধারণা করা যাচ্ছে।

 

৭. জেমি ভার্ডি – £৯.৫ মিলিয়ন (7. Jamie Vardy – £9.5m)

লেস্টার সিটির এই অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার হলেন লীগের অন্যান্য তুলনামূলক যুবা ও দামী স্ট্রাইকারদের চেয়ে অনেকাংশেই বেশি পরীক্ষিত, আস্থাবান, এবং কস্ট-ইফেক্টিভ একজন খেলোয়াড়। এছাড়া, প্রত্যেক মৌসুমই খুব জোড়েসোড়ে বা ঝড়ো গতিতে শুরু করার একটি অসাধারণ রেকর্ড তার রয়েছে। তাই, আপনি চাইলে মৌসুমের শুরুতে একটি নিরাপদ অ্যাটাকিং অপশন হিসেবে তাকে বেছে নিতে পারেন।

 

৮. বুকায়ো সাকা – £৮.০ মিলিয়ন (8. Bukayo Saka – £8.0m)

আর্সেনালের এই যুবা খেলোয়াড়টির তারকা হয়ে ওঠার গল্পটি খুবই আকর্ষণীয় এবং অনুপ্রেরণাদায়ক। ১১টি গোল ও ৯টি এসিস্ট নিয়ে গত মৌসুমটি তার জন্য ছিল বেশ ফলদায়ক। বিতর্কের উদ্রেক হলেও বলা যায় যে, তিনিই বর্তমানে আর্সেনাল দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। তাই, তাকে দলে নিলে আপনি খুব একটা পস্তাবেন না বলেই আমরা মনে করি।

৯. ফিল ফোডেন – £৮.০ মিলিয়ন (9. Phil Foden – £8.0m)

ম্যানচেস্টার সিটি থেকে দুইজন বাড়তি ফরোয়ার্ড (রাহিম স্টার্লিং ও গ্যাব্রিয়েল জেসুস) বিদায় নেওয়ায় ফিল ফোডেন এবারের মৌসুমে তাদের একাদশে একজন নিয়মিত মুখ হবেন বলেই ধারণা করা যাচ্ছে। তার অসাধারণ স্কিলসেট এবং পাসিং, ড্রিবলিং ও ফিনিশিং এর একিউরেসি’র কারণে তাকে বর্তমান যুগের সবচেয়ে প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের মধ্যে একজন হিসেবে ধরা হয়। তাই, তাকে আপনার দলে জায়গা করে দিলে তিনি আপনাকে প্রতি সপ্তাহেই কিছু নিয়মিত বোনাস পয়েন্ট এনে দেওয়ার সামর্থ্য রাখেন।

 

১০. লুইস ডিয়াজ – £৮.০ মিলিয়ন (10. Luis Diaz – £8.0m)

গিত জানুয়ারিতে পর্তুগিজ জায়ান্ট এফসি পোর্তো থেকে লিভারপুলে যোগ দেওয়ার পর থেকেই সবাইকে আশ্চর্যান্বিত করে দিয়ে প্রিমিয়ার লীগ মাতাচ্ছেন এই কলোম্বিয়ান উইংগার। সাদিও মানে লিভারপুল ছাড়ায় তিনি নতুন মৌসুমে আরো বেশি গেমটাইম পাবেন লিভারপুলের মূল একাদশে। এতে করে এফপিএল এ তার স্কোরের ট্যালিতেও বৃদ্ধি দেখা যাবে বলেই ধারণা করা যাচ্ছে। ২০২২ সালের শুরু থেকেই তিনি দূর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন, এবং নতুন মৌসুমেও তিনি প্রচুর গোল ও এসিস্ট করতে সক্ষম হবেন বলেই আমরা মনে করি। তাই এটি মোটামুটি নিশ্চিত যে, তাকে দলে নিলে আপনিও কোন প্রকার ক্ষতির সম্মুখীন হবেন না।

Share.

Leave A Reply