লিডস ইউনাইটেড (Leeds United)

    গত মৌসুমে মাত্র অল্প কিছু ব্যবধানে রেলিগেশন এর ছোবল থেকে বাঁচার পর, এবং তারপর চলমান ট্রান্সফার উইন্ডো’র শুরুতেই দুইজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে হারানোর পর লিডস ইউনাইটেড সমর্থকরা স্বভাবতই কিছুটা চিন্তিত ছিলেন। গত মৌসুম এবং এবারের প্রি সিজন দেখার পর আপনিও যদি ভেবে থাকেন যে এবারের মৌসুমে লিডস ইউনাইটেড এর ভাগ্যে খারাপ কিছুই আছে, তাহলেও আপনাকে মাফ করা যায়, কারণ সকলেই তেমনটিই ভেবেছিল।

    তবে, বাস্তবে যা হয়েছে তা সম্পূর্ণরূপে বিপরীত। লিলি হোয়াইট খ্যাত লিডস ইউনাইটেডকে এবারের মৌসুমে পূর্বের চেয়ে অনেক বেশি একতাবদ্ধ মনে হচ্ছে, এবং ওলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স ও সাউথ্যাম্পটনের বিরুদ্ধে তাদের পারফর্মেন্সগুলিতে স্পষ্টত দেখা গিয়েছে যে, এ মৌসুমে তারা আর কোন প্রকার ঝামেলা চান না।

    যদিও তাদের গত ম্যাচে সাউথ্যাম্পটনের বিরুদ্ধে পুরো তিন পয়েন্ট উদ্ধার করতে না পারাটা একটি চিন্তার বিষয়, এবং তা কোচ জেসি মার্শকেও ভাবাবে, তবে তার দলের পূর্ণাঙ্গ পারফর্মেন্স এর দিকে তাকালে তার মুখে একটি উজ্জ্বল হাসি ফুটে উঠবে বলেই আমরা মনে করি।

    তাদের পরবর্তী ব্লকবাস্টার ম্যাচে তারা ঘরের মাঠে মুখোমুখি হবে থমাস টুখেলের চেলসি’র, যারা কি না তাদের সর্বশেষ ম্যাচে টটেনহ্যাম হটস্পার্স এর বিরুদ্ধে পুরো তিনটি পয়েন্ট না পাওয়ার কারণে এখনো রোষানলে পুড়ছে। চেলসি অবশ্যই চাইবে লিডসের বিরুদ্ধে জয়লাভ করে আবার জয়ের ধারায় ফিরতে।

     

    চেলসি (Chelsea)

    ব্লুস’রা চাইবে রেফারি এন্থোনি টেইলরের উপর জমা হয়ে থাকা তাদের গত সপ্তাহের রাগ কিছুটা উপশম করতে, যখন তারা এল্যান্ড রোডে তাদের পরবর্তী ম্যাচে লিডস ইউনাইটেডের মুখোমুখি হবে। চেলসি নিশ্চয় এখনো ভাবছে যে গত সপ্তাহে স্পার্সের বিরুদ্ধে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত তাদের বিরুদ্ধে গিয়েছে। সেই ম্যাচটিতে স্পার্সের করা দুইটি গোলকে কেন্দ্র করেই উঠেছিল বেশ বড়সড় সমালোচনার ঝড়।

    প্রথমার্ধে তাদের ডমিনেশনের ফল হিসেবে কর্নার কিক থেকে কালিদু কুলিবালি’র করা অসাধারণ ভলিড শটটি স্পার্সের জালে জড়িয়ে পড়ে। এটি তাদের ভালো খেলার প্রাপ্য ফলই ছিল।

    পড়ুন:  অস্ট্রেলিয়া বনাম ডেনমার্ক প্রিভিউ এবং প্রেডিকশনঃ ড্যানিশ ডাইনামাইটদের সহজ জয় প্রত্যাশিত

    যদিও স্পার্সের ড্যানিশ মিডফিল্ডার পিয়ের-এমেরিক হইবার্গ এর করা সমালোচিত গোলটি ম্যাচে কিছুক্ষণের জন্য সমতা নিয়ে আসে, চেলসি সেন্টার ব্যাক রিস জেমস এর অপ্রতিরোধ্য শট থেকে আসা গোলের দরুণ চেলসি আবারো ম্যাচটিতে এগিয়ে যায়। তবে, ম্যাচে শেষ হাসিটি হাসে টটেনহ্যামই, কারণ ম্যাচের ৯০ (+৬) মিনিটে আরো একটি বিতর্কিত গোল করে ম্যাচটিতে ২-২ গোলে সমতা আনেন এবার স্পার্স অধিনায়ক হ্যারি কেইন। ম্যাচটিতে বেশ খানিকটা উগ্রতাও দেখতে মিলে, কারণ উভয় দলের ম্যানেজারই একে অন্যকে শারিরিকভাবে আঘাত করার চেষ্টায় লিপ্ত ছিলেন, যার ফলে রেফারি তাদের দুজনকেই লাল কার্ডও দেখান। অশুভ আচরণের কারণে এফএ তাদের দুজনকেই শাস্তির বিধান দেয়।

    যদি চেলসি আসলেও চায় গত ম্যাচে তাদের হারানো পয়েন্টগুলিকে পুনরুদ্ধার করতে, তাহলে অবশ্যই এল্যান্ড রোডে তাদের পরবর্তী ম্যাচে লিডস ইউনাইটেডের বিপক্ষে তাদেরকে আরো একতাবদ্ধ ও সৃজনশীল হতে হবে।

     

    প্রেডিকশন (Prediction)

    লিডস তাদের নতুন মৌসুমের একটি ভালো শুরু করতে পারলেও, চেলসি বর্তমানে খুবই উদ্দীপ্ত অবস্থায় রয়েছে। ব্লুস’দের ডিফেন্স ও আক্রমণভাগ উভয়ই এখন একটি ভালো শার্পনেস অর্জন করেছে, যার ফলে তারা জেসি মার্শের লিডসকে এই ম্যাচটিতে একরকম উড়িয়ে দিবে বলেই আমরা মনে করছি।

    লিডস ইউনাইটেড ১ – ৩ চেলসি

    ২.৫ গোলের উর্ধ্বে

    চেলসি -১.০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

    Share.
    Leave A Reply