ব্রেন্টফোর্ড (Brentford)

মাত্র দুই ম্যাচডে পূর্বে নিজেদের মাঠে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মত একটি ঐতিহাসিক দলকে ৪-০ গোলের ব্যবধানে তুলোধুনো করে দিয়ে বিস খ্যাত ব্রেন্টফোর্ড খুবই হালকা মেজাজেই ছিল। এবং তাই, ফুলহ্যামের বিরুদ্ধে তাদের সর্বশেষ ম্যাচটির পূর্বে তাদেরকেই ফেভারিট হিসেবে মানা হচ্ছিল।

 

তবে, এটি ভুলে গেলে একদমই চলবে না যে, প্রিমিয়ার লীগ হল অনিশ্চয়তার একটি লীগ, এবং এখানে আগে থেকে সবকিছু জানা অসম্ভব। এবং সেটিরই পুনরাবৃত্তি আমরা দেখি সেই ম্যাচটিতে, যখন থমাস ফ্র‍্যাংক এবং তার শিষ্যরা ফুলহ্যামের বিরুদ্ধে মুখ থুবড়ে পড়ে।

ম্যাচ শুরুর এক মিনিটের মাথায়ই ফুলহ্যাম উইংগার ববি রিড একটি অসাধারণ ফিনিশ এর মাধ্যমে ডেডলক ভাঙেন। এরপর ম্যাচের ২০ মিনিট যেতে না যেতেই নতুন ফুলহ্যাম সাইনিং জাঁও প্যালিনহা একটি দারুণ হেডারের মাধ্যমে তাদের স্কোর দ্বিগুণ করে দেন।

তবে, তাতেই তাদের জয় নিশ্চিত হয়নি, কারণ ব্রেন্টফোর্ড দ্বিতীয়ার্ধে বেশ আটঘাট বেঁধেই নামে, এবং নর্সগার্ড এবং খ্যাতনামা স্ট্রাইকার আইভান টনি’র করা গোল দুইটির উপর ভর করে তারা খেলায় সমতা নিয়ে আসে। তবে, তাদের সেই চেষ্টার ফল মুহূর্তেই ধুলোয় মিশে যায়, যখন ফুলহ্যামের সার্বিয়ান স্ট্রাইকার আলেকজান্ডার মিত্রোভিচ ম্যাচের ৯০ মিনিটে একটি গোল করে তার দলকে জিতিয়ে দেন।

এরপর ব্রেন্টফোর্ড নিজেদের মাঠ জি-টেক কমিউনিটি স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে বেশ কোণঠাসা একটি এভারটন দলের।

 

এভারটন (Everton)

টফিস’দের মৌসুমের প্রথম তিনটি খেলা দেখে মনে হয়েছে যে, তারা গত মৌসুমের পুরোটা জুড়ে যেভাবে খেলেছে, এবারের মৌসুমেও তারই পুনরাবৃত্তি ঘটানোর জন্য তারা বদ্ধপরিকর। গত মৌসুমটিতে অল্পের জন্য রেলিগেশন থেকে বেঁচে যাওয়ার পর, এবার সবাই ভেবেছিল যে এভারটন কর্তৃপক্ষ আটঘাট বেঁধে লেগে পড়বে দলটি পুনঃনির্মাণের উদ্দেশ্যে। তবে, যা হয়েছে তা পুরোপুরি সেটির উলটো।

এবারের প্রিমিয়ার লীগ মৌসুমে এখন পর্যন্ত ফ্র‍্যাংক ল্যাম্পার্ডের দলটি জনশূন্য, এবং তাদের ঝুলিতে এখন পর্যন্ত এসেছে কেবলমাত্র একটি পয়েন্ট, তাও আবার খুবই কষ্টের পর।

পড়ুন:  ওল্ভেস বনাম বার্নলি পূর্বালোচনা

তাদের একমাত্র সেই পয়েন্টটি এসেছে তাদের সর্বশেষ ম্যাচে, যেটি তারা নিজেদের মাঠ গুডিসন পার্কেই খেলেছিল সদ্য প্রমোটেড দল নটিংহ্যাম ফরেস্ট এর বিরুদ্ধে। ম্যাচটির দ্বিতীয়ার্ধে ফরেস্ট ফরোয়ার্ড ব্রেনান জনসন একটি অনবদ্য গোল করে তার দলটিকে এগিয়ে দেন। তবে, ম্যাচের একদম শেষের দিকে দেমারাই গ্রে এর করা সমতাসূচক গোলটি এভারটনের এবং ফ্র‍্যাংক ল্যাম্পার্ডের মুখ কিছুটা হলেও বাঁচাতে সক্ষম হয়।

এরপর টফিস’রা মার্সিসাইড থেকে লন্ডনের উদ্দেশ্যে রওনা হবে ব্রেন্টফোর্ডের মুখোমুখি হওয়ার লক্ষ্যে। তাদের জন্য এই ম্যাচটি মোটেও সহজ কোন পরীক্ষা হবে না।

 

প্রেডিকশন (Prediction)

তাদের সর্বশেষ ম্যাচটিতে পরাজয়ের স্বাদ পেলেও ব্রেন্টফোর্ড এর ফরোয়ার্ড লাইন বেশ ভালো ফর্মে রয়েছে, এবং সেটির উপর ভর করেই আমরা মনে করি তারা টফিস’দের ডিফেন্সকে একটি কঠিন পরীক্ষার সম্মুখীন করতে পারবে, এবং কম ব্যবধানে হলেও ম্যাচটি জিতে নিতে পারবে।

ব্রেন্টফোর্ড ২ – ১ এভারটন

১.৫ গোলের উর্ধ্বে

এভারটন +১.০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

Share.
Leave A Reply