ওলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স (Wolverhampton Wanderers)

ইংরেজি ‘ওয়ান্ডারার্স’ শব্দটির অর্থ হল দিগ্বিদিক ভুলে ঘুরে বেড়ানো। প্রিমিয়ার লীগে বর্তমানে ওলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্সও যেন তাদের নামের সাথে মিল রেখে বর্তমানে সেটিই করছে। 

তাদের সর্বশেষ ম্যাচে ভাইটালিটি স্টেডিয়ামে তারা এমন একটি বোর্নমাউথ দলের সাথে গোলশূন্য ড্র করেছে, যে দলটি বড় বড় দলের (ম্যানচেস্টার সিটি, আর্সেনাল ও লিভারপুল) বিরুদ্ধে এবারের মৌসুমে একের পর এক নাকানিচুবানি খেয়েছে।

ব্রুনো লাজের জন্য এখনই মোক্ষম সময় দলকে জয়ের পথে ফেরানোর। তিনি যদি তার চাকরিটি বাঁচাতে চান, তবে এখনই তাকে তার দলটিকে একটি ভয়ংকর গর্ত থেকে বের করতে হবে, যা করার জন্য তাকে তার ক্রীড়াকৌশলে বেশ কিছু পরিবর্তন আনতে হবে, এবং সম্পূর্ণরূপেনতুন একটি নীলনকশা সাজাতে হবে। তবেই তার দলটি সামনে এগুতে পারবে।

এরপর ওলভস সম্মুখীন হবে একটি উদ্দীপ্ত সাউথ্যাম্পটন ফলের, যারা কি না তাদের সর্বশেষ ম্যাচে চেলসি’র মত একটি বড় দলকে হারিয়েছে।

 

সাউথ্যাম্পটন (Southampton)

সেইন্টস খ্যাত সাউথ্যাম্পটন আবারও প্রমাণ করেছে যে এবারের মৌসুমে কোন দলের জন্যই তাদেরকে হারানো কোন সহজ ব্যাপার হবে না। তারই দৃষ্টান্তস্বরূপ তারা গত ম্যাচে নিজেদের মাঠ সেইন্ট মেরি’স স্টেডিয়ামে চেলসিকে ২-১ গোলে হারিয়েছে।

তার আগের ম্যাচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে হারার পর যখন তারা চেলসি’র বিরুদ্ধে ম্যাচটিতে প্রবেশ করতে যাচ্ছিল, তখন বিশেষজ্ঞ, সমর্থক এবং খেলোয়াড়েরা নির্বিশেষে সকলেই ভেবেছিল যে সেটি তাদের জন্য একটি বিশাল অগ্নিপরীক্ষা হতে চলেছে।

যদিও ইংলিশ উইংগার রাহিম স্টার্লিং এর হাত ধরে চেলসি ম্যাচটিতে এক গোলে এগিয়ে গিয়েছিল, তবুও সাউথ্যাম্পটন হার মানেনি। কিছুক্ষণের মধ্যেই ডি বক্সের বাইরে থেকে সেইন্টস মিডফিল্ডার রোমিও লাভিয়া’র নেওয়া একটি অপ্রতিরোধ্য শটের মাধ্যমে ম্যাচটিতে সমতা আনে তারা।

এরপর, প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার ঠিক আগ মুহূর্তেই ফরোয়ার্ড এডাম আর্মস্ট্রং এর নেওয়া আরেকটি জোড়ালো শট ম্যাচটিতে ২-১ গোলের লিড এনে দেয় সেইন্টস’দেরকে। এরপর পুরো দ্বিতীয়ার্ধ জুড়ে আক্রমণ করার পরও কোন গোল করতে পারেনি থমাস টুখেল এর দল। ওলভস কি পারবে এমন দূর্দান্ত ফর্মে থাকা একটি দলকে রুখে দিতে?

পড়ুন:  প্রিমিয়ার লিগে নেইমার: সম্ভাব্য রবিনহো কেস?

 

প্রেডিকশন (Prediction)

আক্রমণভাগে বেশ কিছু নতুন ও অপরীক্ষিত খেলোয়াড়দের জায়গা করে দিতে গিয়ে ওলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স তাদের আক্রমণের ধার অনেকটাই খুইয়েছে। আবার লিয়ান্ডার ডেন্ডোঙ্কারকে এস্টন ভিলা’র নিকট বিক্রি করে দিয়ে তারা মিডফিল্ডে তাদের স্থিতিশীলতাও কিছুটা হারাবে বলেই মনে হচ্ছে। এমতাবস্থায়, বেশ ভালো ফর্মে থাকা রাল্ফ হ্যাসেনহুটল এর শিষ্যরা ওলভসকে সহজেই হারাতে পারবে বলেই আমরা ধারণা করছি।

ওলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্স ০ – ২ সাউথ্যাম্পটন

১.৫ গোলের উর্ধ্বে

সাউথ্যাম্পটন +১.০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

Share.

Leave A Reply