প্রেডিকশন (Prediction)

লিভারপুল ১ – ২ আয়াক্স

২.৫ গোলের উর্ধ্বে

আয়াক্স +১.০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

 

গুরুত্বপূর্ণ দিকসমূহ (Key Points)

  • লিভারপুল সকল প্রতিযোগিতায় তাদের সর্বশেষ ৭টি ম্যাচের মধ্যে কেবলমাত্র ২টিতে জয়লাভ করতে সমর্থ্য হয়েছে।

  • আয়াক্স সকল প্রতিযোগিতায় তাদের সবশেষ ৭টি ম্যাচের প্রত্যেকটিতেই জয় পেয়েছে।

  • ২০২০২১ সালের উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ মৌসুমেও লিভারপুল আয়াক্স একই গ্রুপে ছিল। সেবার দুই লেগেই লিভারপুল আমস্টারডাম এর দলটিকে গোলে হারাতে সক্ষম হয়েছিল।

 

ফর্ম বিবরণীঃ লিভারপুল (Form Guide: Liverpool)

পুরো প্রাক মৌসুম প্রস্তুতি ট্যুরেই লিভারপুলের ফর্ম ওঠা নামা করছিল। এবং গত সপ্তাহে তাদের চ্যাম্পিয়নস লীগ মৌসুমের প্রথম ম্যাচে নাপোলির কাছে গোলে ধরাসয়ী হওয়ার পর এখন দেখা যাচ্ছে যে, এবারের মৌসুমে সকল প্রতিযোগিতায় ৮টি ম্যাচ খেলে অল রেডসরা তার মধ্য থেকে ৫টিতেই জয়লাভ করতে ব্যর্থ হয়েছে।

লিভারপুল ম্যানেজার ইয়ুর্গেন ক্লপ স্বীকারও করেছেন যে, তার দলের প্রত্যেক খেলোয়াড়কেই আবার নতুন করে নিজেকে আবিষ্কার করতে হবে। এই ম্যাচটিতে জয় ব্যতীত যেকোন ফলাফলই ক্লপের জন্য সতর্কতা বাণী বইয়ে আনতে পারে, এবং তার চাকরিটিকে হুমকির মুখে ফেলে দিতে পারে। আমরা অতীতে অল রেডসদের ডিফেন্সকে যতটা শক্তিশালী দেখেছি, এবার তার অনেকটাই বিপরীত দেখতে পাচ্ছি, এবং এবার তারা এমন এক দলের মুখোমুখি হতে চলেছে, যারা কি নাআক্রমণশব্দটিকে পুরোপুরিভাবে নিজেদের করে নিয়েছে।

 

ফর্ম বিবরণীঃ আয়াক্স (Form Guide: Ajax)

লিভারপুল যেমন তাদের মৌসুমে একটি অসন্তোষজনক সূচনা করেছে, তার ঠিক বিপরীতভাবেই আয়াক্স তাদের নিজস্ব লীগ এরিদিভিজিতে বরাবরের মতই অপ্রতিরোধ্য সূচনা করতে পেরেছে। লীগটিতে ম্যাচ খেলে প্রত্যেকটিতেই জয়লাভ করতে পেরেছে লালসাদা দলটি।

তাদের সর্বশেষ ম্যাচে তারা ডাচ এরিদিভিজিতে হিরেনভেনকে গোলে নাকানিচুবানি খাইয়েছে, এবং মোট ম্যাচ খেলে ১০০% রেকর্ড নিয়ে তারা লীগ টেবিলের শীর্ষে আছে।

 

লিভারপুল বনাম আয়াক্স সম্পর্কিত কিছু তথ্য (Liverpool Vs Ajax Facts)

  • এবারের মৌসুমে গোল করা নিয়ে আয়াক্সকে কোন সমস্যারই সম্মুখীন হতে হয়নি। তারা সকল প্রতিযোগিতায় তাদের সর্বশেষ তিনটি ম্যাচেই কমপক্ষে ৪টি করে গোল করতে সক্ষম হয়েছে।

  • প্রিমিয়ার লীগে ঘরের মাঠে এএফসি বোর্নমাউথকে গোলে বিধ্বস্ত করার ঘটনাটি বাদ দিলে, এবারে মৌসুমে আর কোন ম্যাচেই লিভারপুল ২টির বেশি গোল করতে পারেনি। এটি অবশ্যই এমন একটি বিষয় যা ইয়ুর্গেন ক্লপকে ভাবিয়ে চলেছে।

  • ডিফেন্সে একটি দূর্ভেদ্য দেয়াল তৈরিতে আয়াক্স সফলকাম হয়েছে। সকল প্রতিযোগিতায় তারা তাদের সর্বশেষ ৬টি ম্যাচের একটিতেও কোন গোল হজম করেনি। তবে, তারা যখন এনফিল্ডে হাজার হাজার লিভারপুল সমর্থকদের সামনে খেলতে নামবে, তখন তাদের সেই সুন্দর রেকর্ডটি অবশ্যই হুমকির মুখে পড়বে।

 

যেসকল খেলোয়াড়দের উপর সকলের নজর থাকবে (Players to watch out for)

  • লিভারপুলের ফরোয়ার্ডদের মধ্যে কেবলমাত্র লুইস ডিয়াজই এমন একজন, যিনি কি না এবারের মৌসুমে কিছুটা ফর্মে রয়েছেন, এবং সেজন্যই হয়তো যখন তিনি নাপোলির বিরুদ্ধে অল রেডসদের একমাত্র কনসোলেশন গোলটি করেছিলেন, তখন কেউই বিষ্মিত হোননি। আয়াক্সের বিরুদ্ধে জিততে হলেও লিভারপুলকে তার দিকেই তাকিয়ে থাকতে হবে, এবং তিনি নিজেও দলের হয়ে নিজের সবটুকু দেওয়ার চেষ্টাই করবেন।

  • আয়াক্সের সর্বশেষ ম্যাচের এক পর্যায়ে তাদের নতুন ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ কুদুস স্কটিশ জায়ান্টস রেঞ্জার্স এর ডিফেন্সকে একাই তচনচ করে ফেলছিলেন, এবং কেক এর উপর চেরিফল স্থাপন স্বরূপ তিনি একটি অপ্রতিরোধ্য শট মেরে গোলও করেছিলেন। গত উইকেন্ডেও তিনি হিরেনভেন এর বিরুদ্ধে জোড়াগোল করেছেন, তাই বলাই যায় যে, তিনি বর্তমানে আত্মবিশ্বাসের চরম শিখরে অবস্থান করছেন।

 

লিভারপুল বনাম আয়াক্স প্রেডিকশন (Liverpool Vs Ajax Prediction)

বর্তমানে লিভারপুল বেশ বাজে সময় পার করা সত্ত্বেও বুকমেকাররা এই ফিক্সচারটিতে তাদেরকেই ফেভারিট হিসেবে দেখছেন, এবং সেটি মোটেও কোন বিষ্ময়কর ব্যাপার নয়। তারা যেমন ফর্মেই থাকুক না কেন, যেকোন দলের জন্যই এনফিল্ডে গিয়ে সবকটি পয়েন্ট নিয়ে ঘরে ফেরা খুবই কঠিন একটি কাজ। এছাড়া, লিভারপুল তাদের প্রতিপক্ষের চেয়ে কিছুটা বেশি বিশ্রামও পেয়েছে, কারণ রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ এর প্রয়াণের কারণে গত উইকেন্ডে সকল প্রিমিয়ার লীগ ম্যাচ স্থগিত ঘোষণা করা হয়।

তবে, আজ আমরা ঢেউ এর বিপরীত দিকেই গা ভাসাবো, এবং বলব যে, আয়াক্সই পারবে এনফিল্ডে পাড়ি জমাতে, এবং সেখান থেকে ৩টি পয়েন্ট নিয়ে আমস্টারডামে ফিরতে। আর সেটি যদি তারা করতে নাও পারে, তাহলেও অন্তত ১টি পয়েন্ট তারা অর্জন করবেই করবে।

পড়ুন:  বার্নলি বনাম এভারটন প্রিভিউ
Share.
Leave A Reply