প্রেডিকশন (Prediction)

নিউক্যাসেল ইউনাইটেড ২ – ০ এএফসি বোর্নমাউথ

১.৫ গোলের উর্ধ্বে

নিউক্যাসেল ইউনাইটেড -১.০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

 

গুরুত্বপূর্ণ দিকসমূহ (Key Notes)

  • এখন পর্যন্ত এই দুই দল প্রিমিয়ার লীগে ৮ বার একে অপরের মুখোমুখি হয়েছে, যার মধ্যে নিউক্যাসেল ইউনাইটেড শুধুমাত্র ২ বার পরাজিত হয়েছে। বাকি ছয়টি ম্যাচের মধ্যে তারা ৪টিতে জিতেছে, এবং দুইটিতে করেছে ড্র।
  • বোর্নমাউথের বিপক্ষে প্রিমিয়ার লীগে নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের দুইটি পরাজয়ই এসেছে তাদের ঘরের মাঠ সেইন্ট জেমস’স পার্কে (মার্চ ২০১৬, এবং নভেম্বর ২০১৭)।
  • নিউক্যাসেলের বিপক্ষে প্রিমিয়ার লীগে তাদের সর্বপ্রথম ম্যাচটিতে গোল করতে ব্যর্থ হলেও তার পরের সাতটি ম্যাচের প্রত্যেকটিতেই তারা কমপক্ষে একটি করে গোল করতে সমর্থ্য হয়। তবে, ইংলিশ টপ ফ্লাইটে ম্যাগপাইদের বিরুদ্ধে খেলা তাদের ৮টি ম্যাচের একটিতেও বোর্নমাউথ ক্লিন শিট রাখতে পারেনি।
  • কোন প্রোমোটেড দলের বিরুদ্ধে খেলা তাদের সর্বশেষ ৩টি ম্যাচের প্রত্যেকটিতেই নিউক্যাসেল ইউনাইটেড জয়লাভ করেছে। ২০১৩ সালের অক্টোবর থেকে ২০১৪ সালের নভেম্বর মাস পর্যন্ত তারা প্রোমোটেড দলসমূহের বিরুদ্ধে টানা ৭টি ম্যাচে জয়ের দেখা পেয়েছিল, যা তাদের ইতিহাস এমন দলের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বড় জয়ের ধারা। সেটির পরেই রয়েছে তাদের বর্তমানে চলমান ধারাটি।
  • নিউক্যাসেল ইউনাইটেড তাদের খেলা সর্বশেষ ৮টি ম্যাচের মধ্যে শুধুমাত্র একটিতেই পরাজয়ের স্বাদ গ্রহণ করেছে (৩টি জয়, ৪টি ড্র)। লিভারপুলের বিরুদ্ধে এনফিল্ডে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে তারা একটি পয়েন্ট অর্জন থেকে আর কউএক সেকেন্ড দূরে ছিল। শেষ মুহূর্তে ফ্যাবিও কারভালহো’র করা গোলে তারা ২-১ গোলে ম্যাচটি হেরে যায়, এবং একটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট অর্জন থেকে বঞ্চিত হয়।

 

নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের সাম্প্রতিক ফর্ম (Newcastle United Form Guide)

প্রিমিয়ার লীগে তাদের খেলা সর্বশেষ ৬টি ম্যাচের মধ্যে নিউক্যাসেল ইউনাইটেড জিতেছে মাত্র ১টিতে। বাকি পাঁচটি ম্যাচের মধ্যে তারা ড্র করেছে চারটিতে, এবং পরাজয় বরণ করেছে একটিতে।

পড়ুন:  ওয়েলস বনাম ইরান প্রিভিউ এবং প্রেডিকশনঃ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ গ্রুপ নির্ধারণী ম্যাচ

 

এএফসি বোর্নমাউথের সাম্প্রতিক ফর্ম (AFC Bournemouth Form Guide)

ম্যানচেস্টার সিটি, আর্সেনাল এবং লিভারপুলের বিরুদ্ধে বিশাল বিশাল ব্যবধানে হারলেও তাদের সর্বশেষ ৬টি ম্যাচের মধ্যে বাকি ৩টি ম্যাচ থেকে এএফসি বোর্নমাউথ অর্জন করে নিয়েছে সর্বমোট ৭টি পয়েন্ট (২টি জয়, ১টি ড্র), যা তাদের জন্য বিশাল অর্জন।

 

নিউক্যাসেল ইউনাইটেড বনাম এএফসি বোর্নমাউথ সম্পর্কিত কিছু তথ্য (Newcastle United Vs AFC Bournemouth Facts)

  • ২০২২-২৩ মৌসুমে এ পর্যন্ত ম্যাগপাইস’রা মোট চারটি ম্যাচে ড্র করতে সক্ষম হয়েছে, যা এবারের মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ।
  • এনফিল্ডে লিভারপুলের নিকট ৯-০ ব্যবধানে বিধ্বস্ত হওয়ার পর এবারের মৌসুমে প্রথম প্রিমিয়ার লীগ দল হিসেবে এএফসি বোর্নমাউথ তাদের ম্যানেজার স্কট পার্কারকে চাকরিচ্যুত করে।

 

যেসকল গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়দের উপর সকলের নজর থাকবে (Key players to watch out for)

এলান সেইন্ট-ম্যাক্সিমিন (নিউক্যাসেল ইউনাইটেড) [Allan Saint-Maximin (Newcastle United)]

এই চতুর এবং গতিশীল ফরাসী উইংগার তার গোল করার ক্ষমতার জন্য জনপ্রিয় না হলেও, যেকোন দিন যেকোন দলের রক্ষণভাগকে তচনচ করে দেওয়া অপার ক্ষমতা তার রয়েছে। প্রিমিয়ার লীগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পেপ গার্দিওলা’র ম্যানচেস্টার সিটি’র বিপক্ষে সেইন্ট-ম্যাক্সিমিন তার ক্ষমতার বিশালতা প্রমাণ করেছেন। বোর্নমাউথের যুবা ও দূর্বল রক্ষণভাগকে তিনি কতটা ক্ষতির সম্মুখীন করতে পারেন সেটিই এখন দেখার বিষয়।

 

ডমিনিক সোলাঙ্কি (এএফসি বোর্নমাউথ) [Dominic Solanke (AFC Bournemouth)]

বোর্নমাউথকে গত মৌসুমে প্রমোশন অর্জন করানোর পেছনে মূল ভূমিকাটি পালন করেছিলেন ইংলিশ যুবা স্ট্রাইকার ডমিনিক সোলাঙ্কি। এবারের মৌসুমের শুরুতে তিনি ইঞ্জুরির কারণে পাঁচটি ম্যাচ মিস করলেও, প্রিমিয়ার লীগে চেরিস’দের ৬ষ্ঠ ম্যাচে খেলতে নেমে তিনি নটিংহ্যাম ফরেস্ট এর বিরুদ্ধে একটি গোল করতে সক্ষম হোন, এবং তার নৈপুণ্যের উপর ভর করেই চেরিস’রা ম্যাচটি ৩-২ গোলে জিতে নিতে সমর্থ্য হয়। দলটির জন্য তিনি একটি মোক্ষম হাতিয়ার, যাকে ছাড়া দলটি একরকম দিশেহারাই হয়ে পড়ে। নিউক্যাসেলের বিরুদ্ধে অঘটন ঘটাতে চাইলেও তাই বোর্নমাউথ সমর্থকদের তার দিকেই চেয়ে থাকতে হবে।

পড়ুন:  লিভারপুল বনাম সাউথ্যাম্পটন প্রিভিউ এবং প্রেডিকশনঃ অল রেডস'দের জন্য আরেকটি সহজ জয়ের হাতছানি
Share.
Leave A Reply