...

    প্রেডিকশন (Prediction)

    এসি মিলান ০ – ২ চেলসি

    ২.৫ গোলের নিম্নে

    চেলসি -১.০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

     

    গুরুত্বপূর্ণ দিকসমূহ (Key Notes)

    • চেলসি সকল প্রতিযোগিতায় খেলা তাদের সর্বশেষ ২টি ম্যাচে কোনই গোল হজম করেনি।
    • চেলসি এখন সকল প্রতিযোগিতায় তাদের খেলা সর্বশেষ ৩টি ম্যাচেই কমপক্ষে ২টি করে গোল করেছে।
    • গত সপ্তাহে এসি মিলান চেলসি’র নিকট ৩-০ গোলে নাকানিচুবানি খায়। গত এপ্রিল মাসের পর থেকে সেটি ছিল মাত্র দ্বিতীয় এমন ম্যাচ যেখানে এসি মিলান কোন গোল করতে পারেনি।
    • এসি মিলান সকল প্রতিযোগিতায় তাদের খেলা সর্বশেষ ৭টি ম্যাচে কোন ক্লিন শিট অর্জন করতে পারেনি।

     

    ফর্ম বিবরণীঃ এসি মিলান (Form Guide: AC Milan)

    এই ফিক্সচারটির ফিরতি লেগে গত সপ্তাহে চেলসি’র নিকট স্ট্যাম্ফোর্ড ব্রিজে ৩-০ গোলে বাজেভাবে হারার পর কিন্তু এসি মিলান আবার খুব জোড়েসোড়েই কামব্যাক করেছে। গত য়িকেন্ডে তারা সিরি আ’তে জায়ান্টস জুভেন্টাসকে ২-০ গোলে পরাজিত করে সেই কামব্যাকটি সম্পন্ন করে।

    সেটি ছিল এমন একটি ম্যাচ, যেখানে অধিকাংশ সময় জুড়েই নিয়ন্ত্রণে ছিল এসি মিলান, এবং বলাই যায় যে, জুভেন্টাসকে তারা একরকম ডমিনেট করেই হারিয়েছে। ম্যাচটিতে মিলানের হয়ে স্কোরশিটে নাম লিখান ডিফেন্ডার ফিকায়ো তোমোরি এবং মিডফিল্ডার ব্রাহিম ডিয়াজ।

    যদি এ ব্যাপারে কোনই সন্দেহের অবকাশ নেই যে, গত সপ্তাহের ম্যাচটিতে চেলসিই জেতার যোগ্য দল ছিল, তবে এটিও বিবেচনা করতে হবে যে, সেই ম্যাচটিতে এসি মিলানের মোট ৬ জন ফার্স্ট টিম খেলোয়াড় ইঞ্জুরির কারণে খেলতে পারেননি। সে কারণেই মূলত ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা ম্যাচটিতে নিজেদেরকে তুলে ধরতে অক্ষম হয়েছিলেন। এবার তারা বদ্ধপরিকর সেই ম্যাচটির প্রতিশোধ তুলে নেওয়ার জন্য, কারণ তাদের অধিকাংশ ইঞ্জুরি-আক্রান্ত খেলোয়াড়ই এই ম্যাচটিতে ফিরতে চলেছেন। ম্যাচটি জিতে তারা পরবর্তী রাউন্ডের দিকে আরেক ধাপ অগ্রসর হতেই চাইবেন।

     

    ফর্ম বিবরণীঃ চেলসি (Form Guide: Chelsea)

    গ্রাহাম পটারের অধীনে চেলসি দগীরে ধীরে নিজেদেরকে গুছিয়ে নিতে শুরু করেছে। তারা তাদের খেলা সর্বশেষ ২টি ম্যাচেই ৩-০ গোলের ব্যবধানে জয়ী হতে সক্ষম হয়েছে। সবশেষ তারা গত উইকেন্ডে প্রিমিয়ার লীগে ওলভারহ্যাম্পটন ওয়ান্ডারার্সকে ঐ স্কোরলাইনে হারাতে সক্ষম হয়।

    বিশেষ করে আক্রমণভাগে অল ব্লুস’রা আবারও বেশ ভালো ফর্ম ফিরে পেয়েছে, এবং তাদের সামনে এখন তাই সুযোগ স্যান সিরো’তে গিয়ে এসি মিলানের বিরুদ্ধে একটি স্মরণীয় ডাবল সম্পন্ন করার।

    এছাড়া, বহুদিন পরই এমনটি হয়েছে যে, চেলসি পর পর দুইটি ম্যাচে ক্লিন শিট অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে, এবং গ্রাহাম পটার নিশ্চয় চাইবেন যেন তার দল মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যেই এসি মিলানকে দুইবার গোল করা থেকে বিরত রাখতে পারে।

     

    এসি মিলান বনাম চেলসি সম্পর্কিত কিছু তথ্য (AC Milan Vs Chelsea Game Facts)

    • গত এক শতাব্দীতে এই দুই দল ৬ বার একে অপরের মুখোমুখি হয়েছে। সব মিলিয়ে ২টি জয় নিয়ে হেড-টু-হেড লড়াইয়ে এগিয়ে রয়েছে চেলসি। অন্যদিকে এসি মিলান একবার জিততে সক্ষম হয়েছে, এবং বাকি তিনটি ম্যাচই ড্র হয়েছে।
    • চেলসি তাদের পরবর্তী চ্যাম্পিয়নস লীগ ম্যাচে প্রবেশ করছে একটি বেশ সাদাসিধে গোলস্কোরিং রেকর্ড নিয়েই। তাদের খেলা সর্বশেষ ১০টি ম্যাচে তারা ম্যাচপ্রতি মাত্র ১.৬টি করে গোল করতে পেরেছে। এই সময়কালে তারা ২০টি গোল স্কোর করেছে, এবং সর্বমোট হজম করেছে ১৩টি গোল। অর্থাৎ, সেই ১০টি ম্যাচে তাদের ম্যাচপ্রতি গোল হজম করার গড় হল ১.৩টি।
    • গত উইকেন্ডে ইতালিয়ান সিরি আ’র জায়ান্টস জুভেন্টাসকে ২-০ গোলে হারানোর পর এসি মিলান এখন বেশ তর্তাজা ও ফুরফুরে মেজাজেই রয়েছে। তাই, তারা গত সপ্তাহে চেলসি’র নিকট তাদের শোচনীয় পরাজয়টির বদলা নেওয়ার জন্য মুখিয়েই থাকবে, এবং ম্যাচটি নিয়ে তারা বেশ আত্মবিশ্বাসীও হবে।

     

    যেসকল খেলোয়াড়দের উপর সবার নজর থাকবে (Players to watch out for)

    • খুব কম সময়ের মধ্যেই চেলসি’র হয়ে সবার মন কেড়েছেন গ্যাবোনিজ স্ট্রাইকার পিয়ের-এমেরিক অবামেয়াং। গত সপ্তাহে মিলানের বিরুদ্ধে ১ম লেগের খেলায়ও তিনি স্কোরশিটে জায়গা করে নিয়েছিলেন। বর্তমান ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে আরেকটি গোল করার মাধ্যমে তিনি তার নিজের ও তার দলের ফর্মকে বজায় রাখার চেষ্টাই করবেন।

    • প্রথম লেগে বেশ শান্ত থাকার পর, মাত্র এক সপ্তাহের মাথায়ই তার সাবেক দলের বিরুদ্ধে গোল করার আরেকটি সুযোগ পাবেন এসি মিলানের ফরাসি স্ট্রাইকার অলিভিয়ে জির‍্যু। এবারের মৌসুমে এখন পর্যন্ত সকল প্রতিযোগিতায় মোট ৫টি গোল করেছেন তিনি, এবং সাবেক সমর্থকদের সামনে গোল না পেলেও বর্তমান সমর্থকদের সামনে তিনি গোল করার আপ্রাণ চেষ্টা করবেন, সে ব্যাপারে কোনই সন্দেহ নেই।

     

    এসি মিলান বনাম চেলসি প্রেডিকশন (AC Milan Vs Chelsea Prediction)

    প্রথম লেগে এসি মিলান খুব সহজেই হার মেনে যায় একটি অর্ধ-শক্তিশালী চেলসি দলের নিকট। তবে, এবার আমরা দুই দলের কাছ থেকেই আরো লড়াকু পারফর্মেন্স দেখতে পাব বলেই ধারণা করা যাচ্ছে। তবে আর যাই হোক, বর্তমান প্রেক্ষাপটে এমনটিই মনে হচ্ছে যে, চেলসি’র নিকট অধিকতর মোমেন্টাম রয়েছে, এবং এসি মিলানের বিরুদ্ধে এক সপ্তাহের মধ্যে দুইটি জয় তুলে নেওয়ার জন্য তারাই ফেভারিট। চ্যাম্পিয়নস লীগের এই গ্রুপটি বেশ জমে উঠেছে, কারণ শুধু চেলসি বা এসি মিলানই নয়, বরং গাণিতিকভাবে গ্রুপের সবকটি দলের নিকটই এখনো সুযোগ রয়েছে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে পরের রাউন্ডে যাওয়ার।

    Share.

    Leave A Reply

    Seraphinite AcceleratorOptimized by Seraphinite Accelerator
    Turns on site high speed to be attractive for people and search engines.