প্রেডিকশন (Prediction)

লিডস ইউনাইটেড ১ – ৩ আর্সেনাল

২.৫ গোলের উর্ধ্বে

আর্সেনাল -১.০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

গুরুত্বপূর্ণ দিকসমূহ (Key notes)

  • আর্সেনাল এবারের মৌসুমে তাদের খেলা ৪টি অ্যাওয়ে ম্যাচের মধ্যে ৩টিতেই ক্লিন শিট রাখতে সক্ষম হয়েছে। নিজেদের মাঠের বাইরে সমসংখ্যক ক্লিন শিট অর্জন করতে এর আগে তাদের লেগেছিল ১৪টি ম্যাচ। গত বছরের ডিসেম্বরে লিডস ইউনাইটেডের বিপক্ষে ৪-১ গোলের জয় থেকে শুরু করে আর্সেনাল প্রিমিয়ার লীগে মোট ১৫টি অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলে তার মধ্যে ১০টিতেই জয়ের দেখা পেয়েছে।
  • লিডস ইউনাইটেড এবারের মৌসুমে এখন পর্যন্ত নিজেদের মাঠে অপরাজিত রয়েছে। এল্যান্ড রোডে তাদের খেলা ৪টি ম্যাচের মধ্যে তারা ২টিতে জয় ও ২টিতে ড্র হাসিল করতে সক্ষম হয়। তাদের প্রিমিয়ার লীগ ইতিহাসে তারা এর আগে কেবলমাত্র দুইবারই পর পর ৫টি হোম ম্যাচে অপরাজিত থাকতে পেরেছিল। সেই দুইটি মৌসুম ছিল ১৯৯২-৯৩ এবং ২০০১-০২।
  • আর্সেনাল এবারের মৌসুমে তাদের খেলা সর্বমোট ৯টি প্রিমিয়ার লীগ ম্যাচের মধ্যে ৮টিতেই জয়লাভ করেছে (১টি পরাজয়)। এর আগে শুধুমাত্র ১৯০৩-০৪ মৌসুমেই (তাও আবার ইংলিশ ফুটবলের দ্বিতীয় টিয়ারে) তারা মৌসুমের প্রথম ১০টি ম্যাচের মধ্য থেকে ৯টিতে জয়লাভ করতে পেরেছিল।
  • লিডস ইউনাইটেড এবারের মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগে অন্য যেকোন দলের চেয়ে কমসংখ্যক বার একটানা ১০ এর বেশি পাস সম্পন্ন করতে পেরেছে (৪২ বার), যা কি না চতুর্থ স্থানে থাকা আর্সেনালের (১২২ বার) চেয়ে ৮০ বার কম।

ফর্ম বিবরণীঃ লিডস ইউনাইটেড (Form Guide: Leeds United)

গত আগস্ট মাসে চেলসিকে আকষ্মিকভাবে ৩-০ গোলে হারানোর পর থেকে লিডস ইউনাইটেড তাদের সর্বশেষ ৫টি প্রিমিয়ার লীগ ম্যাচে আর জয়ের দেখা পায়নি। এই সময়কালে তারা ৩টি ম্যাচেই হেরেছে, এবং বাকি দুইটিতে ড্র করেছে।

ক্রিস্টাল প্যালেসের বিরুদ্ধে গত উইকেন্ডে তাদের পরাজয়টি একই সাথে খুবই দুঃখজনক এবং হতাশাজনকও ছিল বটে, কারণ ম্যাচটির ১০ মিনিটের মাথায়ই তারা লিড নিয়ে ফেলেছিল। এখন পর্যন্ত তারা কেবলমাত্র ৬টি পয়েন্ট অর্জন করতে পেরেছে, যার মানে হল তারা রেলিগেশন জোন থেকে মাত্র ৩ পয়েন্টের দূরত্বে অবস্থান করছে। অর্থাৎ, তাদের আরেকটি পরাজয় এল্যান্ড রোডে অবশ্যই সতর্কতার ঘন্টা বাজিয়ে দিবে।

পড়ুন:  টটেনহাম বনাম ব্রাইটন ম্যাচ রিপোর্ট

বর্তমান প্রিমিয়ার লীগ লিডার্স আর্সেনালের বিরুদ্ধে ম্যাচটির মাধ্যমে জয়ের ধারায় ফেরার ব্যাপারটি কিছুটা অসম্ভব একটি মিশনের মতই শোনাচ্ছে, বিশেষ করে কারণ আর্সেনালের খেলা দেখে এখন স্পষ্ট মনে হচ্ছে যে তাদেরকে হারানো যেকোন দলের জন্যই বেশ কঠিন হবে, এবং তাদের এমন ফর্ম হঠাৎ উধাও হয়ে যাওয়ার কোন কারণও আমাদের নজরে পড়ছে না।

ফর্ম বিবরণীঃ আর্সেনাল (Form Guide: Arsenal)

টটেনহ্যাম হটস্পার্সকে ৩-১ গোলে তুলোধুনো করে দেওয়ার পরও যদি কারো মনে আর্সেনালের শিরোপা স্বপ্ন নিয়ে কোন দ্বিধা বাকি ছিল, তবে তা নিশ্চয় মুছে গিয়েছে যখন লিভারপুলকেও গত উইকেন্ডে পরাজিত করে দেয় মিকেল আর্তেতা’র দল।

ম্যাচটিতে গোলস্কোরিং শুরু করার জন্য গানারস’দের লেগেছিল মাত্র ৫৮ সেকেন্ড, এবং দুই দুইবার লিভারপুল ম্যাচটিতে সমতা আনলেও ম্যাচটি ৩-২ গোলে জিতে নিয়ে আর্সেনাল নিজেদের সামর্থ্যের জানান আরো ভালো করেই দিয়ে দেয়। এমিরেটস স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত সেই ম্যাচটিতে আর্সেনালের হয়ে একটি গোল করেন গ্যাব্রিয়েল মার্তিনেল্লি, এবং জোড়াগোল করেন আরেক উইংগার বুকায়ো সাকা।

আর্সেনাল এখন নিজেদের যোগ্যতার বলেই প্রিমিয়ার লীগ টেবিলের শিখরে অবস্থান করছে, এবং এটি এখন স্পষ্ট যে, তারা এবার শিরোপার জন্যই লড়াই করে যাবে। মৌসুমের প্রথম উইকেন্ডের পর আমরা এমনটিই প্রেডিক্ট করেছিলাম।

লিডস ইউনাইটেড বনাম আর্সেনাল সম্পর্কিত কিছু তথ্য (Leeds United Vs Arsenal Game Facts)

  • ২০০০ সালের নভেম্বর মাসে গানারস’দেরকে ১-০ গোলে হারানোর পর থেকে লিডস ইউনাইটেড আর আর্সেনালকে তাদের হোম মাঠে হারাতে পারেনি (২টি ড্র, ৩টি পরাজয়)। এই সময়কালে তাদের ৩টি পরাজয়ের প্রত্যেকটিতেই স্কোরলাইন ছিল ৪-১ (তাদের বিপক্ষে)।
  • আর্সেনাল প্রিমিয়ার লীগে লিডস ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে খেলা তাদের সবশেষ ৬টি ম্যাচের মধ্যে ৫টিতেই জয়লাভ করেছে (১টিতে ড্র)। এছাড়া, তাদের বিরুদ্ধে গানারস’রা সবশেষ ৩টি ম্যাচেই জয় পেয়েছে। এর আগে শুধুমাত্র একবারই তারা লিলি হোয়াইটদেরকে পর পর ৪টি ম্যাচে হারাতে পেরেছিল (১৯৩৬ সালের নভেম্বর থেকে ১৯৩৮ সালের এপ্রিল মাস এর মধ্যে)।
  • লিডস ইউনাইটেড প্রিমিয়ার লীগে তাদের খেলা সর্বশেষ ৫টি ম্যাচে জয়হীন রয়েছে। এর মধ্যে ২টিতে তারা ড্র করতে পারলেও বাকি ৩টিতে তারা পরাজিত জয়। তাদের সর্বশেষ ম্যাচে তারা ক্রিস্টাল প্যালেসের বিরুদ্ধে পরাজিত হয়। এর আগে টানা ম্যাচে হারের স্বাদ তারা পেয়েছিল এবছরেরই মে মাসে (টানা তিন ম্যাচে পরাজয়, যার মধ্যে মাঝখানেরটি ছিল এই আর্সেনালের বিরুদ্ধেই)।
  • আর্সেনাল প্রিমিয়ার লীগে তাদের খেলা সর্বশেষ ৩টি ম্যাচে কমপক্ষে ৩টি করে গোল করতে সমর্থ্য হয়েছে। এর আগে ২০০৪ সালের আগস্ট থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে তারা এর চেয়ে বড় পরিসরে এরকম রেকর্ড করতে পেরেছিল (টানা ৫ ম্যাচ)।
পড়ুন:  ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড বনাম লিডস ইউনাইটেড: লিলিওয়াইটস শীর্ষ ফ্লাইট স্ট্যাটাসের জন্য লড়াই করে

যেসকল খেলোয়াড়দের উপর সবার নজর থাকবে (Players to watch out for)

গ্যাব্রিয়েল মার্তিনেল্লি – আর্সেনাল (Gabriel Martinelli – Arsenal)

আর্সেনালের তারকা ফরোয়ার্ড গ্যাব্রিয়েল মার্তিনেল্লি দলটির হয়ে তাদের সর্বশেষ ১০টি ম্যাচেই খেলতে পেরেছেন, যা কি না দলটির হয়ে তার সবচেয়ে লম্বা প্রিমিয়ার লীগ স্টার্টের দৌড়।

ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ড আর্সেনালের হয়ে এবারের মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগে এখন পর্যন্ত ৮টি গোলের সাথে জড়িত রয়েছেন (৫টি গোল, এবং ৩টি এসিস্ট)। গানারস’দের সর্বশেষ ম্যাচে লিভারপুলের বিরুদ্ধে একটি গোল ও একটি এসিস্ট কামিয়ে নেন এই ব্রাজিলিয়ান গতিদানব।

গ্যাব্রিয়েল জেসুস – আর্সেনাল (Gabriel Jesus – Arsenal)

তার ব্রাজিলিয়ান সতীর্থ মার্তিনেল্লি’র পাশাপাশি স্ট্রাইকার গ্যাব্রিয়েল জেসুসই হলেন এই দলটির মূল কান্ডারী। তিনি এখন পর্যন্ত এবারের মৌসুমে ১০টি গোল ইনভলভমেন্ট উপহার দিয়েছেন।

তিনি হলেন বর্তমানে প্রিমিয়ার লীগের সেরা ফরোয়ার্ডদের মধ্যে একজন, এবং আবারও গোলের ধারায় ফিরতে হলে এল্যান্ড রোড এর চেয়ে ভালো স্থান ও সুযোগ আর তিনি পাবেন না।

লিডস ইউনাইটেড বনাম আর্সেনাল প্রেডিকশন (Leeds United Vs Arsenal Prediction)

সব মিলিয়ে আর্সেনাল বর্তমানে খুব ভালো ফর্মে রয়েছে, এবং আমরা এমন কোন উপায়ই দেখতে পাচ্ছি না যা অবলম্বন করে লিডস ইউনাইটেড তাদেরকে হারিয়ে দিতে পারবে। এটিও মানতেই হবে যে, লিডস ইউনাইটেড তাদের নিজস্ব মাঠে খুব ভালো ফুটবল খেলে থাকে, কিন্তু আমরা এ ব্যাপারে মোটেও আশাবাদী নই যে তারা আর্সেনালকে রুখে দিতে পারবে। আর্সেনাল এর এই অসাধারণ ফর্মের ইতি কোথাও না কোথাও অবশ্যই ঘটবে, কিন্তু আমরা এমনটি মনে করি না যে, লিডস ইউনাইটেড তা ঘটাতে পারবে।

Share.
Leave A Reply