প্রেডিকশন (Prediction)

আর্সেনাল ২ – ০ নটিংহ্যাম ফরেস্ট

২.৫ গোলের নিম্নে

আর্সেনাল -১.০ (এশিয়ান হ্যান্ডিক্যাপ)

গুরুত্বপূর্ণ দিকসমূহ (Key Notes)

  • প্রিমিয়ার লীগে কোন প্রমোটেড দলের বিরুদ্ধে খেলা তাদের সবশেষ ৭টি ম্যাচই জিতেছে আর্সেনাল। এর আগে তারা প্রমোটেড দলসমূহের বিরুদ্ধে টানা ৮টি ম্যাচ জিতেছিল ২০১৩ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৪ সালের এপ্রিল এর মাঝামাঝি। ঘরের মাঠে গানারস’রা প্রমোটেড দলসমূহের বিরুদ্ধে তাদের সর্বশেষ ৩৪টি ম্যাচে অপরাজিত রয়েছে (২৯টি জয়, ৫টি ড্র)। সর্বশেষ তারা এমিরেটস স্টেডিয়ামে প্রমোটেড নিউক্যাসেল ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে ১-০ গোলে হেরেছিল ২০১০ সালের নভেম্বরে।
  • আর্সেনাল তাদের খেলা সর্বশেষ ১০টি প্রিমিয়ার লীগ হোম ম্যাচে ক্লিন শিট রাখতে পারেনি, যদিও তার মধ্যে সর্বশেষ ৮টিতেই তারা জয়ের দেখা পেয়েছে (২টি পরাজয়)। ইংলিশ টপ ফ্লাইটের ইতিহাসে কেবলমাত্র একটি দলই পেরেছে টানা ৯টি হোম ম্যাচে গোল হজম করেও সেই ম্যাচগুলি জিততে। নিজেদের ইতিহাসের প্রথম ৯টি টপ ফ্লাইট ম্যাচেই সেটি অর্জন করেছিল এস্টন ভিলা, ১৮৮৮-৮৯ মৌসুমে।
  • তাদের সর্বশেষ ম্যাচে লিভারপুলকে ১-০ গোলে হারানোর পর নটিংহ্যাম ফরেস্ট ১৯৯৮-৯৯ মৌসুমের শেষ তিনটি ম্যাচের পর এবার আবারও টানা দুই ম্যাচে জেতার লক্ষ্যে মাঠে নামবে। তবে, এবারের মৌসুমে ঘরের মাঠের বাইরে নটিংহ্যাম ফরেস্ট এখনো জয়শূন্যই রয়েছে (২টি ড্র, ৪টি পরাজয়), এবং সর্বশেষ ৪টি অ্যাওয়ে ম্যাচে তারা কোন গোলও করতে পারেনি।
  • নিজেদের মৌসুমের প্রথম ৯টি ম্যাচের প্রত্যেকটিতেই দ্বিতীয়ার্ধে গোল করার পর (মোট ১২টি গোল) তাদের সর্বশেষ দুইটি প্রিমিয়ার লীগ ম্যাচেই মিকেল আর্তেতা’র আর্সেনাল দল দ্বিতীয়ার্ধে গোল করতে ব্যর্থ হয়েছে।

ফর্ম বিবরণী (সর্বশেষ ৫টি ম্যাচ) [Form Guide (Last 5 matches)]

আর্সেনালঃ ড্র – জয় – জয় – জয় – জয়

নটিংহ্যাম ফরেস্টঃ জয় – ড্র – পরাজয় – ড্র – পরাজয়

ম্যাচটি সম্পর্কিত কিছু তথ্য (Match Facts)

  • ১৯৯৯ সালের জানুয়ারি মাসের পর থেকে এবারই প্রথম আর্সেনাল এবং নটিংহ্যাম ফরেস্ট প্রিমিয়ার লীগে একে অপরের মুখোমুখি হতে চলেছে। সর্বশেষ সেই ম্যাচটিতে ফরেস্টের মাঠে গিয়ে আর্সেনাল ১-০ গোলে জয়লাভ করেছিল। এর মধ্যে অবশ্য তারা ৪ বার বিভিন্ন কাপ প্রতিযোগিতায় মুখোমুখি হয়েছে, যার মধ্যে লীগ কাপের দুইটি ম্যাচই জিতেছে আর্সেনাল, এবং এফএ কাপের দুইটি ম্যাচই জিতেছে নটিংহ্যাম ফরেস্ট।
  • নটিংহ্যাম ফরেস্ট তাদের পরবর্তী প্রতিপক্ষ আর্সেনালের মাঠে এর আগে ২৭ বার সফর করে মাত্র ২ বার জয় নিয়ে ফেরত আসতে পেরেছে (১১টি ড্র, ১৪টি পরাজয়)। সেই জয় দুইটি এসেছিল ১৯৮৭ ও ১৯৮৯ সালে, এবং দুইটি ম্যাচেই ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছিলেন ব্রায়ান ক্লাফ।
  • নটিংহ্যাম ফরেস্ট এর জন্য এটিই হতে চলেছে এমিরেটস স্টেডিয়ামে তাদের প্রথম প্রিমিয়ার লীগ ম্যাচ। এর আগে এই মাঠে খেলতে আসা ৪০টি দলের মধ্যে কেবলমাত্র ২টি দলই মাঠটিতে তাদের প্রথম সফরেই জয় পেয়েছে (২০০৭ সালে ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেড, এবং ২০০৮ সালে হাল সিটি)। এমিরেটস স্টেডিয়ামে খেলতে আসা সর্বশেষ ১৬টি অ্যাওয়ে দলের মধ্যে ১৫টি দলই মাঠটিতে তাদের প্রথম ম্যাচে পরাজিত হয়েছে (বাকি ১টি ড্র)।
পড়ুন:  ব্রাইটন বনাম এএস রোমা ইউরোপা লিগ প্রিভিউ

যেসকল গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়দের উপর সবার নজর থাকবে (Key players to watch out for)

গ্রানিত জাকা – আর্সেনাল (Granit Xhaka – Arsenal)

এবারের মৌসুমে আর্সেনালের সুইস মিডফিল্ডার গ্রানিত জাকা ইতিমধ্যে প্রিমিয়ার লীগে ৩টি গোল স্কোর করেছেন তিনি গানারস’দের হয়ে খেলা তার এর আগের তিনটি মৌসুম মিলিয়ে সমান সংখ্যক গোল করেছিলেন। শুধুমাত্র ২০১৮-১৯ মৌসুমে তিনি এর চেয়ে বেশি গোল করতে পেরেছিলেন (৪টি)।

এই ম্যাচে মাঠে নামলে এটিই হবে গানারস’দের হয়ে তার ২০০তম এপিয়ারেন্স। ২০১৬ সালে ক্লাবটিতে যোগ দেওয়ার পর থেকে তার সমান ম্যাচ আর কোন আর্সেনাল খেলোয়াড়ই খেলতে পারেননি (এই তালিকায় তার পরের জনের এপিয়ারেন্স তার থেকে ৪২টি কম)।

তাইয়ো আওয়োনিয়ি – নটিংহ্যাম ফরেস্ট (Taiwo Awoniyi – Nottingham Forest)

নটিংহ্যাম ফরেস্ট এবারের মৌসুমে যে দু’টি ম্যাচে জয়লাভ করেছে, তার প্রত্যেকটির স্কোরলাইনই ছিল ১-০, এবং দু’টি ম্যাচেই তাদের হয়ে জয়সূচক গোলটি করেছেন তাদের নতুন স্ট্রাইকার তাইয়ো আওয়োনিয়ি। এই নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড এবারের মৌসুমে যে ৩টি গোল করেছেন, তার প্রত্যেকটিই ছিল ম্যাচের প্রথম গোল। ফুলহ্যামের বিরুদ্ধে নটিংহ্যাম ফরেস্ট এর ৩-২ গোলের পরাজয়ের দিনেও তিনিই ম্যাচের প্রথম গোলটি করেছিলে। আর্সেনালের বিরুদ্ধে আরেকটি অঘটন ঘটাতে হলে ফরেস্টের হয়ে তাকেই কিছু একটা করতে হবে বলেই ধারণা করা যাচ্ছে।

Share.
Leave A Reply