প্রেডিকশন (Prediction)

ভেন্যুঃ লুসেইল আইকনিক স্টেডিয়াম

আর্জেন্টিনা ৩ – ০ সৌদি আরব

এই ম্যাচটির মধ্য দিয়েই লিওনেল মেসি তার ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্যায়ের প্রথম ম্যাচটি খেলতে চলেছেন, এবং সেটি তিনি ও তার দল আর্জেন্টিনা খেলবেন এএফসি’র অন্তর্ভুক্ত দেশ সৌদি আরবের বিপক্ষে। এক দিকে তারকায় খচিত লা আলবেসিলেস্তে খ্যাত আর্জেন্টিনা, এবং আরেকদিকে মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে বিখ্যাত ও পবিত্র দেশ সৌদি আরব, যারা ফুটবল জগতে “দ্য গ্রিন ফ্যালকনস” নামেও পরিচিত। দুই মহাদেশের দুই হেভিওয়েটের মধ্যকার এই ম্যাচটির সব টিকেটই তাই অন্যান্য ম্যাচের আগে বিক্রি হয়ে গিয়েছিল। এছাড়া, বিশ্বকাপ কর্তৃপক্ষ এটিও জানিয়েছে যে, অন্যান্য সকল দেশের তুলনায় আর্জেন্টিনার ম্যাচগুলির টিকেটই কাতার ২০২২ স্থানীয় অর্গানাইজিং কমিটির নিকট হতে সবার আগে বিক্রি (সোল্ড আউট) হয়ে গিয়েছিল। বিশেষ করে আর্জেন্টিনা এবং লিওনেল মেসির কারণেই এই ম্যাচটি পুরো পৃথিবীর মানুষ দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে।

ফর্ম বিবরণীঃ আর্জেন্টিনা (Form Guide: Argentina)

আর্জেন্টিনা টানা ৩৫ ম্যাচ ধরে অপরাজিত থেকে নিজেদেরকে বিশ্ব ফুটবলের একটি অপ্রতিরোধ্য শক্তিতে পরিণত করতে সক্ষম হয়েছে। তাদের এই অপরাজিত থাকার ধারাটি শুরু হয়েছিল সেই ২০১৯ সালে। সর্বশেষ তারা হেরেছিল ২০১৯ সালের কোপা আমেরিকার ফাইনালে, তাদের সবচেয়ে পুরনো ও গভীর প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের বিপক্ষে।

তবে, তাদের একটি দিককে খুব যথাযথভাবেই প্রশ্নবিদ্ধ করা হচ্ছে, এবং সেটি হল বিশ্বকাপের পূর্বে তাদের প্রস্তুতি। কোন প্রকার প্রতিযোগিতামূলক ফুটবল না থাকায় তারা কেবলমাত্র কিছু ফ্রেন্ডলি ম্যাচের মধ্য দিয়েই তাদের প্রস্তুতি পর্ব সেড়েছে। তবে, যেহেতু একজন একনিষ্ঠ ও ইন-ফর্ম লিওনেল মেসি তাদের আক্রমণের নেতৃত্ব দিচ্ছেন, সেহেতু আর যাই হোক, দল হিসেবে তাদের ক্ষমতা ও কার্যকারিতার উপর প্রশ্ন তোলার সাহস কেউই করবে না।

ফর্ম বিবরণীঃ সৌদি আরব (Form Guide: Saudi Arabia)

সৌদি আরব জাতীয় ফুটবল দল এবারের কাতার বিশ্বকাপে তাদের প্রথম ম্যাচটি খেলবে আর্জেন্টিনার মত একটি শক্ত প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। সেই ম্যাচটিতে প্রবেশের পূর্বে অবশ্য তাদের খেলা সর্বশেষ ৬টি ম্যাচে তারা একটি সমান্তরাল রেকর্ড অর্জন করতে পেরেছে — ২টি জয়, ২টি ড্র, এবং ২টি পরাজয়।

পড়ুন:  লিভারপুল বনাম টটেনহ্যাম হটস্পার্স

তবে, যে কাজটি আর্জেন্টিনা করতে পারেনি, সেটি গ্রিন ফ্যালকন’রা করেছে। তারা বেশ শক্ত সব প্রতিপক্ষদের বিপক্ষে নিজেদের প্রস্তুতি ম্যাচগুলি খেলেছে, যার ফলে এটি বলাই যায় যে, বিশ্বকাপের জন্য আর্জেন্টিনার চেয়ে সৌদি আরবের প্রস্তুতি অনেকটাই ভালো হয়েছে। তবে, সাম্প্রতিক সময়ে তারা যত প্রতিপিক্ষের বিরুদ্ধেই ম্যাচ খেলেছে, তাদের চেয়ে অনেক গুণে বেশি শক্ত প্রতিপক্ষ হবে আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচে খেলতে নামার পূর্বে তাদের রেকর্ড কোন কাজেই দিবে না, বরং মাঠের ট্যাকটিকাল খেলায় তারা আর্জেন্টিনাকে বাজিমাত করতে পারে কি না সেটিই মূল বিষয় হয়ে দাঁড়াবে।

ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the match could go)

আর্জেন্টিনার জন্য একটি সহজ জয়ই অপেক্ষা করছে বলেই আমাদের মনে হয়, এবং ম্যাচটিতে লিওনেল মেসিও একটি গোল এবং/অথবা এসিস্ট নিজের নামে করবেন বলেও আমাদের ধারণা। ২ বারের বিশ্বকাপ জয়ী আর্জেন্টিনা নিজেদের বিশ্বকাপ আসর শুরু করার জন্য এর চেয়ে সহজ প্রতিপক্ষ হয়তো আর কামনা করতে পারতো না। অন্যদিকে, সৌদি আরব এই ম্যাচটিতে রক্ষণাত্মক খেলা খেললেও হয়তো পার পাবে না, তবে গ্রুপের অন্য ম্যাচগুলির আগে তাদেরও বেশ ভালো প্রস্তুতি হবে এই ম্যাচটির মধ্য দিয়ে, যা তাদেরকে খানিকটা সাহসও জোগাতে পারে।

Share.
Leave A Reply