প্রেডিকশন (Prediction)

ভেন্যুঃ আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়াম

বেলজিয়াম ৩ – ০ কানাডা

এবারের কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ ই হয়তো বেলজিয়ামের স্বর্ণযুগীয় খেলোয়াড়দের জন্য শেষ একটি সুযোগ হবে একসাথে একটি ভালো দল হিসেবে কোন শিরোপা জেতার। এবছর ব্রাজিল ফিফার বিশ্ব র‍্যাংকিংয়ে ১ নম্বর দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করার পূর্বে বেলজিয়ামই প্রায় টানা দুই বছর যাবৎ সেই স্থানটি ধরে রেখেছিল, যদিও তারা কোন বড় টুর্নামেন্টের শিরোপা তো দূরে থাক, ফাইনাল অবধিও যেতে পারেনি। কানাডাও বেশ কয়েক বছর ধরে ভালো ফুটবল উপহার দিয়ে চলেছে, কিন্তু তার বিপরীতে তারা কোন সিলভারওয়্যার ঘরে তুলতে পারেনি। তবে, এই ম্যাচটিতে বেলজিয়ামের যতটা হারাবার আছে, কানাডার সে তুলনায় তেমন কিছুই হারাবার নেই।

ফর্ম বিবরণীঃ বেলজিয়াম (Form Guide: Belgium)

বেলজিয়াম এবারের উয়েফা নেশনস কাপে তাদের খেলা মোট ৬টি ম্যাচের মধ্যে কেবলমাত্র ২টিতেই পরাজয় বরণ করেছে। সেই দুইটি পরাজয়ই এসেছে নেদারল্যান্ডস এর বিপক্ষে। তবে, কাগজে কলমে তাদের থেকে অনেকটাই দূর্বল দু’টি দল ওয়েলস এবং পোল্যান্ডের বিপক্ষে তারা বেশ সহজে ও বড় ব্যবধানেই জিততে পেরেছে।

ইউরো ২০২০ এর পর থেকে তাদের ফর্ম অনেকটাই উত্থান পতনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, এবং উয়েফা নেশনস লীগেও তারই প্রতিচ্ছবি আমরা দেখতে পেয়েছি। এখানে উল্লেখ্য যে, ইউরো ২০২০ এ তারা কোয়ার্টার ফাইনাল স্টেজ থেকেই বিদায় নিয়েছিল। যখনই কোন অপেক্ষাকৃত দূর্বল দিলের বিপক্ষে তারা খেলতে নেমেছে, তারা তাদেরকে গুড়িয়ে দিতে সক্ষম হয়েছে। কিন্তু, যখনই প্রতিপক্ষ তাদের সমমানের বা তাদের থেকে উচ্চ মানের হয়, তখনই তারা ভালো খেলতে হিমসিম খায়। তবে, এটিও মানতেই হবে যে, একটি জিনিস তাদের নিকট প্রচুর পরিমাণে রয়েছে, এবং সেটি হল ক্রিয়েটিভিটি, যার মূল উৎস হলেন ম্যানচেস্টার সিটি সুপারস্টার কেভিন ডি ব্রুয়না।

ফর্ম বিবরণীঃ কানাডা (Form Guide: Canada)

কানাডা কেবলমাত্র তাদের দ্বিতীয় ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে কাতার ভ্রমণ করবে। এর আগে তারা শুধুমাত্র একটি বিশ্বকাপেই অংশ নিয়েছিল, যেটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৮৬ সালে। তবে, কানাডা দলে এমন বেশ কিছু যুবা তারকাই রয়েছেন যারা সাম্প্রতিক সময়ে ক্লাব ফুটবলে খুব ভালো করেছেন, এবং নিজ নিজ লীগে অনেক নাম করেছেন।

পড়ুন:  ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বনাম ক্রিস্টাল প্যালেস বিজ্ঞাপন

বায়ার্ন মিউনিখ লেফট ব্যাক আলফন্সো ডেভিসই হলেন কানাডা’র পোস্টার বয়। তিনিসহ দলটির বাকি সকলেই তাদের সাম্প্রতিক ফর্ম ধরে রেখেছেন বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ম্যাচগুলিতেও, যেখানে তারা ৬টির মধ্যে ৩টি ম্যাচেই জয়ের দেখা পেয়েছে। কিন্তু, তারা যে তিনটি ম্যাচে হেরেছে, তার প্রত্যেকটিই ছিল বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী কোন দলের বিপক্ষে। শুধু তাই নয়, সেই তিনটি প্রস্তুতি ম্যাচে তারা একটি গোলও করতে পারেনি। এই বিষয়টি তাদেরকে কিছুটা হলেও ভাবাবে।

ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the game could go)

আমাদের মতে, বেলজিয়াম এই ম্যাচটি খুব সহজেই জিতে নিতে পারবে, কারণ এমন একটি বিশ্বমঞ্চে তাদের পূর্ব অভিজ্ঞতা অবশ্যই তাদের কাজে আসবে, এবং কানাডাকে হারাতে সাহায্য করবে। কানাডার যুবা প্রতিভাগুলি খুব বেশিই উজ্জ্বলভাবে জ্বলে না উঠলে বেলজিয়াম নিজেদের পূর্ণ একাদশ না নামিয়েও এই ম্যাচটি থেকে সবকটি পয়েন্ট অর্জন করতে পারবে।

Share.
Leave A Reply