প্রেডিকশন (Prediction)

আর্জেন্টিনা ৩ – ০ মেক্সিকো

ভেন্যুঃ লুসেইল আইকনিক স্টেডিয়াম

উত্তর এবং দক্ষিণ আমেরিকা’র সেরা দলগুলির মধ্যে দুইটি অন্যতম দলের মধ্যকার এই লড়াইটিতে নিঃসন্দেহে হট ফেভারিট থাকবে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। নক আউট পর্যায়ে যাওয়ার জন্য এবং বিশ্বকাপ শিরোপার দিকে একটি বিশাল ধাপ ফেলার পথে এই মেক্সিকোই তাদের সামনে সবচেয়ে বড় বাঁধা।

কাগজে কলমে মেক্সিকোর শক্তিমত্তা আর্জেন্টিনা’র থেকে অনেকটাই কম হওয়ায় তারা আন্ডারডগ হিসেবেই ম্যাচটি খেলবে, এবং আর্জেন্টিনার জন্য যতটুকু সম্ভব তারা ম্যাচটি কঠিন করে তুলতেই চাইবে। অন্ততপক্ষে তারা এটি নিশ্চিত করতে চাইবে যেন তারা কোন বিশাল ব্যবধানে না হারে, কারণ তেমনটি ঘটলে তাদের গোল ব্যবধানে সেটির বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে, যা তাদের পরের রাউন্ডে যাওয়াটাকে আরো কঠিন করে তুলতে পারে।

ফর্ম বিবরণীঃ আর্জেন্টিনা (Form Guide: Argentina)

আর্জেন্টিনা এবারের বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী সকল দলের মধ্যে সবচেয়ে উত্তম সাম্প্রতিক রেকর্ড ও ফর্ম নিয়ে বিশ্বকাপ খেলতে কাতার গিয়েছে। তারা গত তিন বছরে কোন ম্যাচ হারেনি।

তাদের এই অপরাজিত থাকার ধারাটি চলছে ৩৫টি ম্যাচ ধরে, এবং এই ধারায় তারা মোট ৭০টি (গড়ে ম্যাচপ্রতি ২টি করে গোল) গোলও করেছে, যা সত্যিই বিষ্ময়কর। তারা যদি এই অপরাজিত থাকার ধারাটি ৪২ ম্যাচ পর্যন্ত নিয়ে যেতে পারে, তাহলেই তারা বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন এর খেতাবটি পেয়ে যাবে।

ফর্ম বিবরণীঃ মেক্সিকো (Form Guide: Mexico)

এবারের উত্তর আমেরিকা বিভাগের বিশ্বকাপ বাছাওয়ে মেক্সিকোকে মোটেও তেমন একটা বেগ পেতে হয়নি। তারা তাদের ১৪টি ম্যাচ খেলে তার মধ্য থেকে শুধুমাত্র ২টিতেই পরাজিত হয়েছিল। উক্ত বিভাগ থেকে ১ নম্বর পজিশনে থাকা কানাডার সাথে তাদের পয়েন্ট সংখ্যাও সমান ছিল, কিন্তু গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকার কারণে তারা ২য় পজিশনে থেকে বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব সম্পন্ন করে।

তবে, সাম্প্রতিক ফর্মের দিকে তাকালে মেক্সিকান’রা খুব একটা নিশ্চিন্ত থাকতে পারবেন না। তারা তাদের সর্বশেষ ৩টি ম্যাচের মধ্যে মাত্র একটিতে জয় হাসিল করতে সক্ষম হয়েছে, এবং তাদের সর্বশেষ ১০টি ম্যাচের মধ্যে তারা জিতেছে মাত্র ৪টিতে। ‘এল ত্রি’ খ্যাত মেক্সিকোর জন্য তাই এই ম্যাচটি বেশ কঠিনই হতে চলেছে।

পড়ুন:  টটেনহ্যাম হটস্পার্স বনাম বার্নলি (Tottenham Hotspurs Vs Burnley)

ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the game could go)

আলবেসিলেস্তে খ্যাত আর্জেন্টিনা এই ম্যাচটিতে একটি ডমিনেটিং ভূমিকাই পালন করবে এবং তাদের টেকনিকালি শ্রেয় খেলোয়াড়দের উপর ভর করে শুরু থেকেই ম্যাচটির নিয়ন্ত্রণ দখল কররে চাইবে। অবশ্যই সবকিছুর মাঝখানে থেকে কলকাঠি নাড়বেন কিংবদন্তি লিওনেল মেসি।

মেক্সিকোর মূল উদ্দেশ্যই হবে লিওনেল মেসির পাশাপাশি লাউতারো মার্তিনেজ, রদ্রিগো ডি পল, এবং এনহেল ডি মারিয়া’র মত অসাধারণ সব খেলোয়াড়দেরকেও থামানো বা দমিয়ে রাখা। এই কাজটি মেক্সিকোর জন্য প্রায় অসম্ভবই হবে বলে মনে হচ্ছে। আর্জেন্টিনার অসামান্য গুণমান এবং বিশ্বখ্যাত সব খেলোয়াড়েরা মেক্সিকোর নড়বড়ে ডিফেন্সকে গুড়িয়ে দিতেই পারে।

ইতিহাসের দিকে তাকালে, এর আগে বিশ্বকাপে এই দুই দল মোট তিনবার মুখোমুখি হয়েছে একে অপরের। তার মধ্যে সবকটি ম্যাচেই জয়লাভ করেছে আর্জেন্টিনা। সর্বশেষ ২০১০ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকায় মেক্সিকোকে ৩-১ গোলে হারিয়েছিল আর্জেন্টিনা। আগামী ২৬ই নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য তাদের মধ্যকার এবারের ম্যাচটিতেও একই রকম ফলাফল হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি দেখা যাচ্ছে।

Share.
Leave A Reply