প্রেডিকশন (Prediction)

ওয়েলস ১ – ১ ইরান

ভেন্যুঃ আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়াম

৪৪,০০০ দর্শক ধারণ ক্ষমতা বিশিষ্ট আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়ামে ২০২২ ফিফা বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্যায়ের দ্বিতীয় রাউন্ডের খেলার সূচনা হবে ওয়েলস বনাম ইরানের এই ম্যাচটির মধ্য দিয়েই। বিশ্বব্যাপী বুকমেকার এবং ফুটবল বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ম্যাচটিই হতে চলেছে গ্রুপ ‘বি’ এর নির্ধারণী ম্যাচ, কারণ এই ম্যাচের ফলাফলের উপরই নির্ভর করবে ইংল্যান্ডের পাশাপাশি এই গ্রুপ থেকে আর কোন দল পরবর্তী রাউন্ডে পৌঁছাতে পারবে। তাই, নিজেদের প্রথম ম্যাচে তারা যাই অর্জন করে থাকুক না কেন, এই ম্যাচটিতে উভয় দলই চাইবে নিজেদের সর্বোচ্চটাই দিতে।

ফর্ম বিবরণীঃ ওয়েলস (Form Guide: Wales)

ওয়েলস ইতিমধ্যে বিশ্বকাপ জোয়ারে বেসে চলেছে, কারণ দুই এক দশক নয়, বরং পুরো ৬৪ বছর পর তারা বিশ্বকাপে খেলার সুযোগটি পেয়েছে। বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে তাদের ফর্ম ছিল দূর্দান্ত, এবং বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচগুলিতেও তারা সেই ফর্মটি ধরে রাখতে সক্ষম হয়। তাদের খেলা সর্বশেষ ৬টি ম্যাচের মধ্যে ৫টিতেই তারা জয়ের দেখা পেয়েছে।

তবে, ইরানের বিপক্ষে এই ম্যাচটি ড্রাগনস খ্যাত ওয়েলস এর জন্য হতে চলেছে একরকম ভাগ্য নির্ধারণী একটি ম্যাচ। তাদের লক্ষ্য নিশ্চয়ই রাউন্ড অব ১৬ এ উত্তীর্ণ হওয়া এবং সেটি অর্জনের জন্য তাদের এই ম্যাচটি জেতা অনেকটা আবশ্যক। এতবার চেষ্টা করে শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পেয়ে সেটির পূর্ণাঙ্গ সদ্ব্যবহারই করতে চাইবে তারা।

ফর্ম বিবরণীঃ ইরান (Form Guide: Iran)

ওয়েলস এর মত ইরানও এই ম্যাচটিতে প্রবেশ করবে পয়েন্ট তালিকায় শূন্য পয়েন্ট নিয়েই। তাদের প্রথম ম্যাচটি তাদের জন্য আশানুরূপ যায়নি, কিন্তু তারা নিজেদের প্রতিভার কিছুটা ঝলক দেখাতে সক্ষম হয়েছিল।

এখন যখন তারা এমন একটি দলের মুখোমুখি হতে চলেছে, যাদের শক্তিমত্তা তাদের নিজস্ব শক্তিমত্তার কাছাকাছি, তখন ইরান নিশ্চয় নিজেদের সেই অসাধারণ স্টাইলিশ ফুটবলটি প্রদর্শন করারই চেষ্টা করবে, যেটির জন্য তারা এত জনপ্রিয়। এবং, তাদের সাম্প্রতিক ফর্মও বেশ জোরদার, যা তাদের প্রতিপক্ষ ওয়েলসকেও যথেষ্ট ভাবাবে, কারণ তারা সাধারণত এমন দলের বিপক্ষে ডিফেন্ড করতে হিমসিম খায়, যারা কাউন্টার অ্যাটাকে পারদর্শী, এবং ইরান তেমনি একটি দল।

পড়ুন:  ক্রিস্টাল প্যালেস বনাম ওয়াটফোর্ড (Crystal Palace Vs Watford)

ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the game could go)

যদিও ইতিহাস এই ফিক্সচারে ওয়েলস এর পক্ষেই কথা বলে, তবে সাম্প্রতিক ফর্মের বিচারে এই দুই দলের মধ্য থেকে একটি দলকে ফেভারিট হিসেবে বেছে নেওয়াটা প্রায় অসম্ভব। এর আগে এই দুই দল মাত্র একবারই একে অপরের মুখোমুখি হয়েছিল। ১৯৭০ সালে অনুষ্ঠিত সেই ম্যাচটিতে ১-০ গোলে বিজয়ী হয়েছিল ওয়েলস। এই ম্যাচটিতে খুব বেশি গোলের আশা না রাখাই ভালো, এবং একটি ড্র’ই এই ম্যাচের জন্য সবচেয়ে নিরাপদ বাজি।

Share.

Leave A Reply