প্রেডিকশন (Prediction)

ক্রোয়েশিয়া ২ – ০ কানাডা

ভেন্যুঃ খলিফা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম

কানাডার বিরুদ্ধে একটি কষ্টসাধ্য জয় অর্জন করে এক ম্যাচ হাতে রেখেই বিশ্বকাপের নক আউট পর্বের খেলা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে গ্রুপ পর্যায়ের এই দ্বিতীয় ম্যাচটি খেলতে মাঠে নামবে ক্রোয়েশিয়া। তবে, শক্তিমত্তার বিচারে এবার কানাডাও রাউন্ড অব ১৬ খেলার উপযোগী একটি দল, বিধায় তারাও সহজে ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নয়। তবে, তেমনটি যদি করতে হয়, তাহলে তাদের ছোট্ট বিশ্বকাপ ইতিহাসে কানাডাকে অর্জন করতে হবে নিজেদের প্রথম পয়েন্ট বা পয়েন্টসমূহ (ড্র বা জয়ের উপর নির্ভরশীল), এবং সেটি তাদেরকে করতে হবে বড় বড় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধেই।

ফর্ম বিবরণীঃ ক্রোয়েশিয়া (Form Guide: Croatia)

গত বিশ্বকাপের পুনরাবৃত্তি ঘটানোর ক্ষেত্রে বেশ বদ্ধপরিকরই মনে হচ্ছে শক্তিশালী ক্রোয়েশিয়াকে। তারা বর্তমানে টানা চার ম্যাচের একটি জয়ের ধারায় অবস্থান করছে, এবং পুরো ২০২২ সালে তারা কেবলমাত্র একটি ম্যাচেই পরাজিত হয়েছে।

তাদের সেই চার ম্যাচের জয়ের ধারায় মজুদ রয়েছে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স ও বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের অন্যতম সেরা দল ডেনমার্কের বিপক্ষে জয়গুলিও। বেলজিয়ামের পাশাপাশি তারাই এই গ্রুপটি থেকে পরের রাউন্ডে যাওয়ার জন্য ফেভারিট, এবং গ্রুপ পর্যায়ের তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচে সেই দল দুইটি একে অপরের মুখোমুখি হওয়ার পূর্বেই হয়তো তারা পরের রাউন্ডের জন্য কোয়ালিফাইও করে ফেলবে।

ফর্ম বিবরণীঃ কানাডা (Form Guide: Canada)

নিজেদের ইতিহাসের দ্বিতীয় বিশ্বকাপে প্রবেশের পূর্বে কানাডা খুব একটা ভালো ফর্ম প্রদর্শন করতে পারেনি। নিজেদের বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হয়ে বেশ মর্যাদার সাথে বিশ্বকাপের টিকেট বুক দেওয়ার পর থেকে তাদের ফর্মে ভাঁটা পড়ে, এবং ধারাবাহিকভাবে তারা জয়লাভ করতে ব্যর্থ হয়। তাদের সর্বশেষ ৪টি ম্যাচের মধ্যে তারা একটিতে জিততে পেরেছে মাত্র। যে ফর্ম তাদেরকে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ এনে দিয়েছিল সাম্প্রতিক সময়ে সে ফর্ম আর তারা খুঁজে পেতে পারছে না।

পড়ুন:  লিভারপুল বনাম নটিংহাম ফরেস্ট প্রিভিউ

বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ আসরে খেলত্র নেমে তারা ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে যেতেই পারে, এবং সেখানে দাঁড়িয়ে ক্রোয়েশিয়ার মত বড় ও শক্তিশালী দলের বিপক্ষে হেরে গেলেও সেটি তাদের জন্য অপমানজনক কিছুই হবে না বলেই আমরা মনে করি।

ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the game could go)

এই দুই দল তাদের ফুটবলীয় ইতিহাসে প্রথম বারের মত একে অপরের মুখোমুখি হতে চলেছে, এবং তাও আবার এমন একটি ম্যাচে যেখানে উভয় দলের জন্যই জেতাটা অনেক জরুরি।

কানাডা চেষ্টা করবে পুরো মাঠ জুড়েই কম্প্যাক্ট থাকতে, এবং রেসোল্যুট ডিফেন্ডিং করতে, যাতে করে ক্রোয়েশিয়াকে গোল করতে বেগ পেতে হয়। এছাড়া, তাদের দলে যেহেতু গতির বাহুল্য রয়েছে, সেহেতু তারা কাউন্টার অ্যাটাকে ক্রোয়েশিয়ার উপর আঘাত হানতেও পিছপা হবে না। তবে বলাই বাহুল্য, ম্যাচটি পজিশনের দিক থেকে ক্রোয়েশিয়ানরাই নিয়ন্ত্রণ করবে।

কানাডা খুব সাহসের সাথে এই ম্যাচটিতে লড়াই করবে, এবং তারা একটি অঘটন ঘটানোর খুব কাছাকাছিও পৌঁছে যেতে পারে, কিন্তু ক্রোয়েশিয়ার অগাধ শক্তি এবং লুকা মদ্রিচের মত প্রভাবশালী ও অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের উপস্থিতির কারণে কানাডা আর শেষ হাসি হাসতে পারবে না। ম্যাচটি থেকে সবকটি পয়েন্টই অর্জন করবে ক্রোয়েশিয়া, এমনটিই আমাদের ধারণা।

Share.
Leave A Reply