প্রেডিকশন (Prediction)

    ওয়েলস ১ – ইংল্যান্ড

    ভেন্যুঃ আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়াম

    বিশ্বকাপের গ্রুপ বি এর সর্বশেষ ম্যাচে একে অপরের মুখোমুখি হবে দুই ব্রিটিশ রাইভাল ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস। রাউন্ড অব ১৬ তে ওঠার যেকোন প্রজার সুযোগ বাঁচিয়ে রাখতে হলে এই ম্যাচটিতে জয় পেতেই হবে ওয়েলসকে। অন্যদিকে, নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচেই পরের রাউন্ডে কোয়ালিফিকেশন নিশ্চিত করে ফেলবে ইংল্যান্ড, এমনটিই সকলের প্রত্যাশা। নক আউট পর্যায়ে পৌঁছানোর পূর্বে নিজেদের সর্বশেষ গ্রুপ ম্যাচে জয়লাভ করে মোমেন্টাম ধরে রাখার চেষ্টাই করবে থ্রি লায়ন্স’রা। 

    ফর্ম বিবরণীঃ ওয়েলস (Form Guide: Wales)

    এটি ওয়েলস এর জন্য কেবলমাত্র তাদের দ্বিতীয় বিশ্বকাপ আসর। এর আগে তারা সর্বশেষ বিশ্বকাপ খেলেছে ১৯৫৮ সালে। সেবার অবশ্য তারা বেশ খানিকটা সাফল্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছিল। কয়েক যুগ পর সেই সাফল্যটি পুনরুদ্ধার করারই চেষ্টা আবার তারা করবে।

    বিশ্বকাপে প্রবেশের পূর্বে ওয়েলসের ফর্ম খুব একটা আশাব্যঞ্জক ছিল না। তাদের খেলা সর্বশেষ ৫টি ম্যাচের মধ্যে তারা ৪টিতে হেরেছে, এবং বাকি একটিতে করেছে ড্র। এছাড়া, যদি আমরা তাদের পুরো ২০২২ সালের রেকর্ড দেখি, তাহলে তারা মোট ৯টি ম্যাচ খেলে জয়লাভ করতে পেরেছে মাত্র ২টিতে, এবং সেই দুইটি জয় ছিল বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে এবং প্লে অফে, যার মাধ্যমে তারা কাতারের টিকেট বুক করেছিল। এই রেকর্ড থেকে আমরা এটিও বুঝতে পারি যে, গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে বা মাস্ট-উইন ম্যাচে তারা অনেক ভালো খেলে থাকে। তবুও, এত বাজে ফর্ম নিয়ে কোন টুর্নামেন্ট এ প্রবেশ করা যেকোন দলের জন্যই আদর্শ পরিস্থিতি নয়।

    ফর্ম বিবরণীঃ ইংল্যান্ড (Form Guide: England)

    থ্রি লায়নস খ্যাত ইংল্যান্ড এবারের বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট দল, এবং তাদের নজর এবার শিরোপার দিকেই। তাদের সর্বশেষ এবং একমাত্র বিশ্বকাপ শিরোপাটি এসেছিল ১৯৬৬ সালে, এবং তারপর থেকেই এই গর্বিত রাষ্ট্রটি নিজেদের ঘরে বিশ্বকাপ শিরোপা তুলতে ব্যর্থ হয়েছে। ৫৬ বছর কেটে যাওয়ার পর এবার তাদের নিকট একটি প্রতিভাবান এবং যোগ্য দল রয়েছে, যার উপর ভর করে তারা আবারও বিশ্বকাপ জেতার স্বপ্ন দেখতে পারছে।

    পড়ুন:  সাউথ্যাম্পটন বনাম এস্টন ভিলা প্রিভিউ এবং প্রেডিকশনঃ সাম্প্রতিক ফর্মের পুনরাবৃত্তি ঘটানোর লক্ষ্যে সফরকারীরা

    তবে, বিশ্বকাপে প্রবেশের পূর্বে ওয়েলস এর মত তাদের ফর্মও ছিল বেশ শোচনীয়। পুরো ২০২২ সালে তারা কেবলমাত্র ২টি জয় হাসিল করতে পেরেছে, এবং কাতারের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার পূর্বে তারা টানা ৬টি ম্যাচে জয়ের স্বাদ পায়নি। কাইল ওয়াকার এবং রিস জেমস এর মত খেলোয়াড়দের ইঞ্জুরিও তাদেরকে খুব একটা স্বস্তি দেবে না।

    ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the game could go)

    আমরা এই ম্যাচটিতে একটি অঘটনই প্রেডিক্ট করছি, ওয়েলসের অনুকূলে, কারণ এই ম্যাচে প্রবেশ করার পূর্বে ইংল্যান্ড পরবর্তী রাউন্ডে তাদের কোয়ালিফিকেশন কনফার্ম করে ফেলবে, কিন্তু গ্রুপের দ্বিতীয় স্থান দখলের একটি সুযোগ তখনও ওয়েলসের নিকট থাকবে, যা তাদেরকে আরো বেশি উদ্দীপ্ত করে তুলবে।

    ওয়েলস এর নিকট গ্যারেথ বেল এর মত কিংবদন্তি খেলোয়াড়ের পাশাপাশি বেশ কয়েকজন গুণসম্পন্ন খেলোয়াড় রয়েছে, এবং তাদের উপর ভর করেই তারা এই ম্যাচটি জিতবে এবং পরের রাউন্ডে অগ্রসর হবে বলে আমরা ধারণা করছি।

    Share.
    Leave A Reply