প্রেডিকশন (Prediction)

আর্জেন্টিনা ২ – ০ অস্ট্রেলিয়া

ভেন্যুঃ আহমেদ বিন আলি স্টেডিয়াম

২০০৭ সালের পর থেকে আর একে অপরের মুখোমুখি হয়নি এই দুই দল। তাই, আগামী ৩রা ডিসেম্বর, রোজ শনিবার, কাতারে চলমান ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২ এর রাউন্ড অব ১৬ এর ম্যাচটি খেলতে মাঠে নামার আগে আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি এবং অস্ট্রেলিয়া কোচ গ্রাহাম আর্নোল্ডকে প্রচুর রিসার্চ করতে হবে। তবে, দু’দলের অতীত ইতিহাস ঘাটলে দেখা যায় যে, সকারুজ খ্যাত অস্ট্রেলিয়াই অধিক সমস্যায় পড়তে পারে। অন্যান্য আরো বেশ কিছু বিষয়ই তাদের প্রতিকূলে রয়েছে। আর্জেন্টিনার থেকে তাদের টুর্নামেন্ট অভিজ্ঞতাও কম, আবার তাদের দলে একজন বহুবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী তারকারও ঘাটতি রয়েছে।

ফর্ম বিবরণীঃ আর্জেন্টিনা (Form Guide: Argentina)

এবারের বিশ্বকাপে তাদের প্রথম ম্যাচেই সৌদি আরবের বিপক্ষে একটি হতাশাজনক এবং আশ্চর্যজনক হারের পর আর্জেন্টিনা আকাশ থেকে মাটিতে পড়ে। তবে, এরপর স্কালোনি’র শিষ্যরা আবারও তাদের স্বভাবসুলভ রূপে ফিরে আসতে সক্ষম হয়েছে। তবে, এখনও মনে হচ্ছে যে, তারা প্রথম গিয়ারেই খেলে চলেছে, এবং মেক্সিকো এবং পোল্যান্ডের বিপক্ষে তাদের পারফর্মেন্সেও সেটিরই প্রতিফলন লক্ষ্য করা গিয়েছে।

উভয় ম্যাচেই প্রথমার্ধে ভালো খেলেও গোল করতে না পেরে দ্বিতীয়ার্ধে একটি স্পেল ভালো খেলে দুইটি করে গোল করতে পেরেছে আর্জেন্টিনা, যা দ্বিতীয় রাউন্ডে অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হওয়ার পূর্বে স্কালোনিকে একটু হলেও ভাবাবে।

ফর্ম বিবরণীঃ অস্ট্রেলিয়া (Form Guide: Australia)

২০০৬ জার্মানি বিশ্বকাপের পর থেকে এবারই প্রথম বিশ্বকাপের রাউন্ড অব ১৬ তে নাম লিখালো অজি’রা, যদিও এবার তাদের উপর খুব কম মানুষেরই ভরসা ছিল। প্রত্যাশার চাপ না থাকাতেই হয়তো অস্ট্রেলিয়ান’রা সবাইকে চমকে দিতে সমর্থ হয়েছে। ডিফেন্সে জাদুর ফুয়ারা সৃষ্টি করে তারা ডেনমার্ক ও তিউনিশিয়ার মত শক্ত দলকে হারিয়ে দিয়েছে, এবং ফ্রান্সের পেছনে গ্রুপ ডি এর দ্বিতীয় স্থান দখল করে রাউন্ড অব ১৬ তে জায়গা করে নিয়েছে।

পড়ুন:  আরসেনাল বনাম ক্রিস্টল প্যালেসের প্রিভিউ

তাদের সবকটি ম্যাচেই তাদের মূল লক্ষ্যই ছিল সর্বোচ্চ কর্মদক্ষতা অর্জন করা। একরকম ধৈর্য্যের পরীক্ষা দিয়ে ডিফেন্স করে যখনই তারা আক্রমণ করার সুযোগ পেয়েছে, সেসকল সুযোগেরই সদ্ব্যবহার করেছে অজি’রা। এরই ফলস্বরূপ ডেনমার্ক ও তিউনিশিয়ার বিপক্ষে তারা দুইটি ১-০ গোলের জয় তুলে নিতে সক্ষম হয়েছে। গ্রাহাম আর্নোল্ড আবারও সেই একই রকম ট্যাকটিক নিয়েই তার দলকে মাঠে নামাবেন। তবে, ফ্রান্সের বিপক্ষে সেটি যেমন কাজে দেয়নি, আর্জেন্টিনার বিপক্ষেও তা তেমনি কাজে না দেওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the game could go)

কাগজে কলমে বা দু’দলের মধ্যকার অতীত রেকর্ডে, কোন দিক দিয়েই আর্জেন্টিনার চেয়ে এগিয়ে থাকতে পারছে না অস্ট্রেলিয়া। এছাড়া, টেকনিক্যালিটি এবং ফিজিক্যালিটি — এই দুই দিক দিয়েও অজি’দেরকে বাজিমাত করার ক্ষমতা রয়েছে লা আলবেসিলেস্তে’র। সৌদি আরবের মত একটি উঁচু ডিফেন্সিভ লাইন প্রয়োগ করে হয়তো আর্জেন্টিনাকে বধ করার চেষ্টা করতে পারে অস্ট্রেলিয়া, কিন্তু লিওনেল স্কালোনি এবং তার শিষ্যরা তাদের ভুল থেকে ইতিমধ্যে শিক্ষা গ্রহণ করে ফেলেছে। তাই আমরা ধারণা করছি যে, আর্জেন্টিনা এই ম্যাচটিতে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত রাজত্ব করে যাবে, এবং খুব সহজেই সকারুজ’দের হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছাবে।

Share.
Leave A Reply