প্রেডিকশন (Prediction)

    ফ্রান্স ২ – ০ পোল্যান্ড

    ভেন্যুঃ আল থুমামা স্টেডিয়াম

    ১৯৮২ সালের পর থেকে বিশ্বকাপে পোল্যান্ডের মুখোমুখি হয়নি ফ্রান্স। এমনকি, উয়েফা কনফেডারেশন এর অন্তর্ভুক্ত শীর্ষ ২০টি দল বেশ ঘন ঘনই একে অপরের সম্মুখীন হলেও ফ্রান্স ও পোল্যান্ডের মধ্যকার সর্বশেষ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১২ সালে, অর্থাৎ এক দশকেরও বেশি সময় পূর্বে। পোল্যান্ড চাইবে ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি ঘটাতে, এবং তাদের মধ্যকার সর্বশেষ ও একমাত্র বিশ্বকাপ ম্যাচটির মত করেই ফ্রান্স অর্থাৎ বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদেরকে হারিয়ে দিতে। ফ্রান্স নিজেরাও এই ম্যাচটিতে প্রবেশ করার পূর্বে আত্মবিশ্বাসে টইটম্বুর হয়ে থাকবে, কারণ এবারের বিশ্বকাপ শিরোপাটি জিতলে তারাও একটি বিশাল ইতিহাস তৈরি করতে পারবে।

    ফর্ম বিবরণীঃ ফ্রান্স (Form Guide: France)

    ২০১৮ সালের বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সই এবারের বিশ্বকাপের ফেভারিট দলগুলির মধ্যে সবচেয়ে ভালো ক্রীড়ানৈপুণ্য প্রদর্শন করতে পেরেছে। গ্রুপ পর্যায়ে তাদের প্রথম ম্যাচে তারা তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেওয়ার মত একটি পারফর্মেন্স উপহার দেয়, যদিও ম্যাচের মাত্র ১৩ মিনিটের মাথায়ই ১-০ গোলে পিছিয়ে গিয়েছিল তারা। ডেনমার্কের বিপক্ষেও তারা একই রকম খেলাই খেলেছে, যদিও ড্যানিশ’দের অসাধারণ ডিফেন্ডিং এর কারণে খুব ক্ষীণ ব্যবধানেই (২-১) ম্যাচটি জিততে হয় তাদেরকে।

    গোলের সুযোগ তৈরি করা, এবং গোল করা তাদের জন্য খুব বড় কোন সমস্যা হবে না, তবে দিদিয়ের দেশম’কে তার দলের রক্ষণভাগের দিকে কিছুটা নজর দিতে হবে, কেননা এ পর্যন্ত বিশ্বকাপে তারা যে ধরণের গোল হজম করেছে, তা যেকোন মুহূর্তে অঘটন ঘটিয়ে দিতেই পারতো। বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলতে পারা, এবং প্যারিসের প্লেন ধরে দেশে ফেরত যাওয়ার মধ্যে লা ব্লুস’দের জন্য পার্থক্য গড়ে দিতে পারে তাদের ডিফেন্সই।

    ফর্ম বিবরণীঃ পোল্যান্ড (Form Guide: Poland)

    গোল ব্যবধানের মত একটি টেকনিক্যাল বিষয়ের উপর ভর করে বিশ্বকাপের রাউন্ড অব ১৬ তে পৌঁছেছে পোল্যান্ড। পুরো গ্রুপ পর্যায়ে তাদের পারফর্মেন্স দেখে একবারও এমনটি মনে হয়নি যে, তারা ফ্রান্সের মত একটি পরাশক্তিকে হারানোর সামর্থ্য রাখে।

    পড়ুন:  ম্যানচেস্টার সিটি বনাম লিভারপুল

    পোল্যান্ড কোচ শেজলো মিশনিউইজ অবশ্য দুইটি বিষয় নিয়ে গর্ব করতেই পারেন, এবং সেগুলি হল তার দলের ফিজিক্যালিটি, এবং হেডিং দক্ষতা। সেই বিষয়গুলির কথা মাথায় রেখেই তাদেরকে এবারের বিশ্বকাপে তাদের এ পর্যন্ত সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষাটির সম্মুখীন হতে হবে।

    ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the game could go)

    ফ্রান্স খুব সতর্ক থাকবে যেন তারা ম্যাচের শুরুর দিকেই গোল হজম করে না বসে। ম্যাচের অধিকাংশ সময় জুড়েই তারা খেলা নিয়ন্ত্রণ করবে। আমরা মনে করছি যে, প্রচুর শটের সুযোগ এবং গোলের সম্ভাবনা তৈরি করতে পারবে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা, এবং পোল্যান্ডকে ম্যাচের অধিকাংশ সময় জুড়েই তোপের মুখে থাকতে। শেষ পর্যন্ত ম্যাচটিতে একটি সহজ জয়ই তুলে নিবে লা ব্লুস’রা, এমনটিই আমাদের ধারণা।

    Share.
    Leave A Reply