প্রেডিকশন (Prediction)

    মরক্কো ১ – ২ স্পেন

    ভেন্যুঃ এডুকেশন সিটি স্টেডিয়াম

    মরক্কো হয়তো স্পেনের বিপক্ষে বিশ্বকাপের রাউন্ড অব ১৬ এর ম্যাচটিতে ফেভারিট হিসেবে মাঠে নামবে না, তবে তারা এমন একটি অনুভূতি নিয়েই মাঠে নামবে যে, ২০১০ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়নদেরকে হারানোর এবং অসম্ভব কিছু অর্জন করার মত শক্তিমত্তা তাদের রয়েছে। অন্যদিকে, স্পেন টুর্নামেন্ট ফেভারিটদের মত সূচনা করলেও তারপর থেকে তাদের পারফর্মেন্স অনেকটা ছিল তাদের ২০১৪ ও ২০১৮ বিশ্বকাপের পারফর্মেন্স এর মতই হতাশাজনক। এটি খুবই শ্বাসরুদ্ধকর ও মজার একটি ম্যাচ হতে চলেছে, এবং এবারের রাউন্ড অব ১৬ এর সকল ম্যাচের মধ্যে অঘটন ঘটার সবচেয়ে সমূহ সম্ভাবনা এই ম্যাচটিতেই রয়েছে।

    ফর্ম বিবরণীঃ মরক্কো (Form Guide: Morocco)

    এটলাস লায়নস’রা খুব ভালো করেই দেখিয়ে দিয়েছে যে, এবারের বিশ্বকাপ শুরুর পূর্বে আফ্রিকান দলগুলির মধ্যে কেন তাদেরকেই সবচেয়ে ইন-ফর্ম দল মানা হচ্ছিল। এবারের বিশ্বকাপে তারাই হল আফ্রিকা থেকে আগত ২য় সর্বোচ্চ ফিফা র‍্যাংকিংধারী দল (আফ্রিকান কাপ অব নেশনস ২০২২ জেতা সেনেগাল হল আফ্রিকার সর্বোচ্চ ফিফা র‍্যাংকিবংধারী দল)।

    তারা অতি নিয়মিত হারে ভালো পারফর্ম করেছে পুরো গ্রুপ পর্যায় জুড়ে, এবং এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে ধারাবাহিক দলগুলির মধ্যে অন্যতমও তারাই৷ প্রথম ম্যাচে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে আক্রমণ ও ডিফেন্সের সমন্বয়ে একটি অসাধারণ পারফর্মেন্স উপহার দেওয়ার পর বেলজিয়াম এবং কানাডা’র বিপক্ষে তারা আরো ভালো ক্রীড়ানৈপূণ্য প্রদর্শন করে, এবং উভয় ম্যাচেই সহজ জয় তুলে নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে পরের রাউন্ডে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে নেয়।

    ফর্ম বিবরণীঃ স্পেন (Form Guide: Spain)

    কোস্টা রিকা’র বিপক্ষে একটি দূর্দান্ত (৭-০ গোলের) জয়ের মধ্যে দিয়ে বিশ্বকাপের সূচনা করে স্পেন প্রমাণ করেছিল যে, তারা পঞ্চম গিয়ারে অবস্থান করছে। তবে, খুব তাড়াতাড়িই সেই গিয়ার আবার ১ এ নেমে এসেছে। ঠিক যেমন একজন স্প্রিন্ট এথলেট খুব জোড়েসোড়ে দৌড়ের সূচনা করলেও দুই-এক ল্যাপ পড়েই দমিয়ে যায়, এবং তার গতিতে পড়ে ভাঁটা। কোস্টা রিকা’র বিপক্ষে তারা যতগুলি গোলের সুযোগ তৈরি করেছিল, জার্মানি এবং জাপানের বিপক্ষে দু’টি ম্যাচ মিলিয়েও তারা সে পরিমাণ গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি।

    পড়ুন:  লেস্টার সিটি বনাম ফুলহ্যাম প্রিভিউ এবং প্রেডিকশনঃ টানা তৃতীয় জয়ের হাতছানি কটেজার'দের সামনে

    তবে, এটিও না বললেই নয় যে, স্পেন কোচ লুইস এনরিকে’র বল পজিশন নিয়ন্ত্রণের ট্যাকটিকটি বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই কাজে দেয়। তবে, মরক্কো এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে টেকনিক্যালি দক্ষ দলগুলির মধ্যে একটি, এবং তাদেরকে হারাতে হলে স্পেনের দরকার হবে শুধুমাত্র বল পজিশনের চেয়েও অনেক বেশি কিছু।

    ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the game could go)

    এই ম্যাচটিতেও স্পেনের নিকট হতে সকলেই একটি পজিশন ফুটবলের মাস্টারক্লাস আশা করতেই পারেন। অন্যদিকে, মরক্কো অবশ্য চেষ্টা করবে সুযোগ পেলেই স্পেনের ডিফেন্সের উপর আঘাত হানার, এবং ম্যাচটিকে গোড়াতেই নিষ্পন্ন করার। স্পেন তাই চেষ্টা করে যাবে কোনভাবে মরক্কোকে রুখে দিতে এবং এটলাস লায়নস’দের ধৈর্য্যের পরীক্ষা নিতে। ম্যাচটি অন্তিম পর্যায়ে একটি মানসিক শক্তি ও ইচ্ছাশক্তির লড়াইয়ে পরিণত হবে, এবং আফ্রিকার দল মরক্কো বেশ ভালো লড়াই করলেও, আমাদের ধারণা শেষ পর্যন্ত অভিজ্ঞতার জোড়ে স্পেনই জয়যুক্ত হবে।

    Share.
    Leave A Reply