প্রেডিকশন (Prediction)

    পর্তুগাল ২ – ২ সুইজারল্যান্ড (অতিরিক্ত সময়ের শেষে)  |  পর্তুগাল ৬ – ৫ সুইজারল্যান্ড (পেনাল্টি শুট আউট)

    ভেন্যুঃ লুসেইল আইকনিক স্টেডিয়াম

    এখন পর্যন্ত হয়তো পর্তুগাল উরুগুয়ের বিপক্ষে খুব সহজেই একটি জয় তুলে নিয়েছে, এবং ঘানা ও দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে খানিকটা সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে, তবে এবারের বিশ্বকাপে নিজেদের সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষার সম্মুখীন তারা হবে সুইজারল্যান্ড এর বিপক্ষে। সুইস’রা গত বেশ কিছু ফিফা বিশ্বকাপ আসর ধরেই বড় দলগুলির জন্য একটি কঠিন প্রতিপক্ষ হিসেবে নিজেদেরকে গড়ে তুলেছে। 

    অনেকেই মনে করছেন যে, পর্তুগাল উড়ে এসে জুড়ে বসে বিশ্বকাপ শিরোপাটি নিয়ে যাবে। সুইজারল্যান্ড এর মত জায়ান্ট কিলার’দেরকে হারাতে পারলে তারা বহিরাগত নয়, বরং শিরোপার লড়াইয়ে একটি চ্যালেঞ্জার হিসেবেই আত্মপ্রকাশ করতে পারবে।

    ফর্ম বিবরণীঃ পর্তুগাল (Form Guide: Portugal)

    ২০১৬ সালের ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন পর্তুগাল এবার মহাদেশের গন্ডী পেরিয়ে বৈশ্বিক সাফল্যের জন্য মরিয়া। বেলজিয়ামের মত হয়তো তাদের জন্যও এটিই সর্বশেষ সুযোগ একটি সোনালী যুগের খেলোয়াড়দেরকে নিয়ে বিশ্বকাপ শিরোপা জেতার, কারণ পরবর্তী বিশ্বকাপের আগমণের পূর্বেই তাদের দলের বেশির ভাগ গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়েরা হয় অবসরে চলে যাবেন, আর তা না হলে নিজেদের ক্যারিয়ারের সবচেয়ে ফলবান সময়টি পার করে ফেলবেন। 

    ঘানার বিপক্ষে অনেক কষ্টের মধ্য দিয়ে একটি জয় ছিনিয়ে আনার পর এবং উরুগুয়েকে এক কথায় উড়িয়ে দেওয়ার পর, দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে ২-১ গোলে পরাজিত হওয়ার মাধ্যমে ডানা ভেঙে আকাশ থেকে ভূমিষ্ঠ হয়েছে পর্তুগাল। খুব বেশি হলে তাদের গ্রুপ পর্যায়ের ফর্মকে গড়পড়তা বলা যেতে পারে। তবে, তাদের সেই দু’টি জয়কে মাইলফলক মেনে তারা আত্মবিশ্বাসের সাথেই সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে বলে আমাদের ধারণা।

    ফর্ম বিবরণীঃ সুইজারল্যান্ড (Form Guide: Switzerland)

    একটি জেদী সার্বিয়া দলকে বাজিমাত করে নিজেদের শেষ গ্রুপ ম্যাচটিতে ৩-২ গোলের জয় তুলে নেয় সুইজারল্যান্ড। ৪০ মিনিটের একটি স্পেলের মধ্যে উভয় দল বেশ সাহসিকতার সাথে একে অপরের ডিফেন্সকে আঘাত করতে থাকে। শেষ পর্যন্ত নটিংহ্যাম ফরেস্ট মিডফিল্ডার রেমো ফ্রোয়লার এর করা গোলে ম্যাচটি জিতে নেয় সুইস’রা, এবং সাথে সাথে পরের রাউন্ডের টিকেটও বুকিং করে নেয় তারা।

    পড়ুন:  ম্যান ইউনাইটেড বনাম রিয়াল বেটিস: রেড ডেভিলস বিশাল পরাজয় থেকে বাউন্স ব্যাক

    তাদের এবারের বিশ্বকাপ আসরটির সারসংক্ষেপ হল সার্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটিই। এবারের এই টুর্নামেন্টটিতে এখন তারা যে পর্যায়ে রয়েছে, তা তারা নিজেদের যোগ্যতার বলেই অর্জন করেছে। পর্তুগালের বিপক্ষে তারা আরো একটি সুযোগ পাবে নিজেদেরকে প্রমাণ করার, এবং বিশ্বকাপের মঞ্চে আরো একটি অঘটন ঘটানোর।

    ম্যাচটিতে যা যা ঘটতে পারে (How the game could go)

    এটি খুবই মজার একটি ম্যাচ হতে চলেছে বলেই আমরা মনে করছি, এবং ম্যাচটিতে অঘটন ঘটার সম্ভাবনাও বেশ উঁচু। তবে, এরকম ম্যাচে (কাগজে কলমে) পর্তুগালের অসাধারণ ও সুইজারল্যান্ডের থেকে শ্রেয় স্কোয়াডটি প্রচন্ডভাবে কাজে আসতে পারে। যেহেতু সুইজারল্যান্ডের তুলনায় তাদের দলে অপেক্ষাকৃতভাবে অনেক বেশি সংখ্যক এমন খেলোয়াড় রয়েছেন, যারা কি না যেকোন সময় খেলার স্রোত বদলানোর ক্ষমতা রাখেন, সেহেতু এই ম্যাচটিতে অঘটন ঘটানো ততটাও সহজ হবে না সুইস’দের জন্য। ম্যাচটি দু’দলের মধ্যে এক ধরণের স্নায়ুর লড়াইয়ে পরিণত হবে, এবং আমাদের ধারণা সেই স্নায়ুযুদ্ধে খুব কম ব্যবধানে হলেও পর্তুগালই বিজয়ী হবে।

    Share.
    Leave A Reply