আমরা ইতিমধ্যে কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ এর মধ্যভাগ পার করেছি, এবং এরই মধ্যে আমরা বহু মন মাতানো গোল এবং চমকপ্রদ খেলা উপভোগ করেছি।

লিওনেল মেসি থেকে শুরু করে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো পর্যন্ত সকল তারকারাই অসাধারণ সন বুট পরিধান করে খেলতে নেমেছেন, এবং তাদের চমৎকার ফিনিশিংয়ের পেছনে সেসকল বুটেরও কৃতিত্ব বেশ খানিকটাই রয়েছে। গোলের পাশাপাশি পাসিং এবং প্রতিপক্ষের গোলকিপারের হাত কাঁপানো সব শট এর পেছনেও ভূমিকা পালন করে সেসব বুটস। 

এখন পর্যন্ত ১০০টিরও বেশি গোল আমরা দেখতে পেয়েছি এবারের বিশ্বকাপ আসরে, এবং যেসকল বুটস থেকে ঐসব গোল এসেছে এবং তৈরি হয়েছে, সেসকল বুটস নিয়েই আজকে আমাদের আয়োজন।

লিওনেল মেসি – আর্জেন্টিনা (Lionel Messi – Argentina)

নাইকি নিশ্চয় এখানে একটি ব্যবসায়িক সুযোগ হাতছাড়া করেছে, কেননা “মার্কিউরিয়াল আর্জেন্টাইন” হিসেবে পরিচিত এই বিশ্বসেরা ফুটবলারকে বিশ্বকাপে বুটস সরবরাহ করছে নাইকি’রই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী, জার্মানির ব্র‍্যান্ড “এডিডাস”।

শুধু এবারের বিশ্বকাপই নয়, বহু বছর ধরেই মেসিকে বুটস সরবরাহ করে আসছে ব্র‍্যান্ডটি, এবং বহু বছরের এই যুগলবন্দীতে বিশ্ববাসী পেয়েছে বহুসংখ্যক অসাধারণ ডিজাইন এবং কালেকশন। এবারের বিশ্বকাপে লিওনেল মেসি পরিধান করছেন “লেয়ান্দা” — যা হল এক্স স্পিড পোর্টাল নামক একটি কালেকশনের বিশেষ এডিশন।

লেয়ান্দা, স্প্যানিশ ভাষায় যার মানে হল ‘কিংবদন্তি’, এর ডিজাইনটি অনুপ্রাণিত হয়েছে +এফ৫০.৬ টিউনিট থেকে, যে বুটজোড়া পড়ে নিজের প্রথম বিশ্বকাপে (২০০৬, জার্মানি) খেলেছিলেন মেসি।

এই জুতোজোড়া থেকে ইতিমধ্যে চলমান বিশ্বকাপে ৩টি গোল ও একটি এসিস্ট এসেছে, এবং আরো বেশি কিছুর প্রতীক্ষায় রয়েছে পুরো বিশ্ব।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো – পর্তুগাল (Cristiano Ronaldo – Portugal)

নাইকি’র পোস্টার বয় ও পর্তুগিজ কিংবদন্তি ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো এবারের বিশ্বকাপে একটি গোল করে ইতিমধ্যে একটি রেকর্ডের মালিক হয়েছেন — ৫টি বিশ্বকাপে অংশ নিয়ে ৫টিতেই গোল করা প্রথম এবং একমাত্র খেলোয়াড় হলেন তিনিই।

এটি এমন একটি রেকর্ড যা অদূর ভবিষ্যতে কারো ভাঙার সুযোগ খুব কম, এবং যে বুটজোড়া তাকে এই অসামান্য কৃতিত্বটি অর্হন করতে সাহায্য করেছে তা হল নাইকি’র স্পেশাল এডিশন কাস্টম-মেইড ‘মার্কিউরিয়াল এয়ার জুম সুপারফ্লাই ৯এস’। 

পড়ুন:  লেস্টার সিটিঃ এখন সময় এসে গিয়েছে ব্রেন্ডান রজার্সকে চাকরিচ্যুত করার

আমেরিকান স্পোর্টস ব্র‍্যান্ড নাইকি’র সাথে জীবনব্যাপী করা তার চুক্তিতে এটি হল মার্কিউরিয়াল সিরিজ এর ৩১তম বুটস। তবে, এই বুটজোড়া এখন ইতিহাসের অংশ, কেননা তিনি সেগুলি পরিধান করেই এক বিরল ইতিহাস গড়ে ফেলেছেন।

বুকায়ো সাকা – ইংল্যান্ড (Bukayo Saka – England)

আমেরিকান স্পোর্টসওয়্যার ব্র‍্যান্ড ‘নিউ ব্যালেন্স’ এর প্রতিনিধি ও ব্র‍্যান্ড এম্বাসেডর ইংলিশ তারকা বুকায়ো সাকা এবারের পুরো কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ জুড়েই পরিধান করবেন তাদের এবং ইতালিয়ান ফ্যাশন লেবেল ‘স্টোন আইল্যান্ড’ এর সম্মিলিতভাবে তৈরিকৃত স্পেশাল এডিশন বুটস।

স্টোন আইল্যান্ড বর্তমানের স্পোর্টসওয়্যার বাজারে সজোড়ে প্রবেশ করার চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে, এবং সেই উদ্দেশ্যে তারা ইংল্যান্ড দলের সবচেয়ে প্রতিভাবান দুই তারকাকে এম্বাসেডর হিসেবে বেছে নিয়েছে, যার মধ্যে একজন হলেন বুকায়ো সাকা। এর থেকে ভালো মার্কেটিং তাদের জন্য আর কি হতে পারে? 

স্টোন আইল্যান্ড × নিউ ব্যালেন্স এর নতুন সেই বুটজোড়া থেকে ইতিমধ্যে তিনটি গোল এসে পড়েছে। সামনে নিশ্চয় এই ইতালিয়ান ব্র‍্যান্ডের জন্য আরো সুখকর দিন অপেক্ষা করছে।

রাহিম স্টার্লিং – ইংল্যান্ড (Raheem Sterling – England)

রাহিম স্টার্লিংই হলেন সেই আরেক ইংল্যান্ড তারকা যিনি এবার নিউ ব্যালেন্স এবং স্টোন আইল্যান্ড এর তৈরিকৃত সেই স্পেশাল এডিশন বুটস পরিধান করে বিশ্বকাপে খেলছেন। এছাড়া, দুই ব্র‍্যান্ডের পার্টনারশিপ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান আকর্ষণও ছিলেন তিনিই।

বুটজোড়ার রঙ এর ব্যাপারে বলতে গেলে, রঙটি হল খাঁকি সবুজ ঘরানার, যা সম্পূর্ণরূপে মিলিটারি ভাব জন্মায়। বলাই বাহুল্য, এ পর্যন্ত সশস্ত্র বাহিণীর মতই আক্রমণাত্মক মনোভাব নিয়ে বিশ্বকাপে খেলে চলেছে থ্রি লায়নস’রা।

স্টোন আইল্যান্ড এর ব্র‍্যান্ড নামটি জুতোটির পার্শ্বদেশ ঘেঁষে নেমে গিয়েছে, এবং ব্র‍্যান্ডটির কমলা রঙে রঞ্জিত ব্যাজটি রয়েছে জুতোর পেছন দিকে।

এই বুটজোড়া পরিধাম করে স্টার্লিং ইতিমধ্যে একটি গোল করে ফেলেছেন। আরো গোল কি আসছে?

অলিভিয়ে জিরুঁ – ফ্রান্স (Olivier Giroud – France)

বিশ্বকাপের রাউন্ড অব ১৬ তে পোল্যান্ডের বিপক্ষে গোল করার মাধ্যমে ফ্রান্সের সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতায় পরিণত হয়েছেন অলিভিয়ে জিরুঁ। এবারের বিশ্বকাপে তিনি তার সতীর্থ আন্তোয়াঁ গ্রিজম্যান এর মতই পুমা আল্ট্রাস নামক জুতোজোড়া পরিধান করে খেলে ইতিহাস রচনা করেছেন।

পড়ুন:  মিড-সিজন রিপোর্ট এবং ডেডলাইন ডে'র দিকে ফিরে তাকানো

নিজের ক্যারয়ারের বেশির ভাগ সময় জুড়েই জিরুঁ পুমা’র একজন এম্বাসেডর হয়ে কাটিয়েছেন। পুমা’র জুতাই তার ভাগ্য পরিবর্তন করেছে বলে তিনি অনেক জায়গাতে বলেছেনও, কারণ ক্লাবের হয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগ ও উয়েফা ইউরোপা লীগ জেতার ক্ষেত্রে, এবং দেশের হয়ে ২০১৮ বিশ্বকাপ শিরোপা এবং ২০২১ উয়েফা নেশনস লীগ শিরোপা জেতার ক্ষেত্রেও তাকে সাহায্য করেছে এই পুমা’র জুতোই।

এবারের কাতার ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২ এ তিনি তার বিশ্বস্ত পুমা আল্ট্রাস সিরিজ এর স্পেশাল এডিশন বুটস পড়েই মাঠে নামছেন, এবং সেটি পায়ে দিয়েই তিনি ইতিহাস গড়ে চলেছেন।

গাভি – স্পেন (Gavi – Spain)

পাবলো মার্তিন পায়েজ গাভিরা, যিনি কি না গাভি নামেই অধিকতর পরিচিত, বিশ্ব পর্যায়ে এক বছরের কিছুটা বেশি সময় ধরে নিয়মিত ফুটবল খেলেই বিশালাকারে নাম করেছেন, এবং ঝড়ো গতিতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠেছেন।

১৮ বছরে পা দেওয়ার পূর্বেই তিনি বার্সেলোনার হয়ে ৫০টির বেশি ম্যাচে অংশ নিয়েছিলেন, এবং বর্তমানে বিশ্বের উদীয়মান তারকাদের মধ্যে তিনি অন্যতম সেরা একজন।

বর্তমানে তিনি স্পেন জাতীয় দলের একজন নিয়মিত মুখ, এবং এবার তিনি তার প্রথম বিশ্বকাপ আসরে অংশগ্রহণ করছেন। এই আসরে তার সাথী হল তার নাইকি ফ্যান্টম জিটি২এস বুটজোড়া, যার উপর তার অসীম ভরসা। বার্সেলোনার খ্যাতনামা একাডেমি লা মাসিয়া থেকে মূল দলে সুযোগ পাওয়ার পর থেকেই তিনি এই ব্র‍্যান্ডের এই মডেলের জুতোজোড়াই পরিধান করে আসছেন।

এবারের বিশ্বকাপে এই বুটজোড়া পরিধান করে তিনি ইতিমধ্যে একটি গোল ও একটি ম্যান অব দ্য ম্যাচ পুরষ্কার অর্জন করে নিয়েছেন। টুর্নামেন্ট যতই এগুবে, তার অসীম প্রতিভার জোড়ে তিনি এই বুট পায়ে আরো অনেক কিছু অর্জন করতে পারবেন বলেই সকলের ধারণা।

ইনাকি উইলিয়ামস – ঘানা (Inaki Williams – Ghana)

স্পেনে জন্ম নেওয়া এই ঘানা মিডফিল্ডার, যার ছোট ভাই কি না গাভি’র সাথে স্পেন জাতীয় দলে খেলছেন, তার খেলোয়াড়ী জীবনের সর্বপ্রথম আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে অংশ নিয়েছেন এবারের বিশ্বকাপে।

পড়ুন:  বিক্রির খাতায় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডঃ রোনাল্ডো'র দেওয়া সাক্ষাৎকারের প্রভাব নাকি শুধুই একটি কাকতালীয় ঘটনা?

স্পেন জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার আশায় বহুদিন অপেক্ষা করার পরে তিনি শেষমেষ তার জাতীয়তা পরিবর্তন করেন, এবং তার নতুন জাতীয়তার ভিত্তিতে তিনি একজোড়া নাইকি মার্কুরিয়াল সিরিজের কাস্টমাইজড বুটস পেয়ে যান। এখানে উল্লেখ্য যে, ঘানা হল তার পিতামাতার জন্মভূমি। 

তবে, এবারের বিশ্বকাপ আসরে অবশ্য তিনি অন্য একজোড়া বুটস পরিধান করেছেন — কাস্টম-মেইড নাইকি এয়ার জুম মডেলের বুটস। সেই জুতো পায়ে তিনি তার নতুন জাতীয় দলের হয়ে অসাধারণ ক্রীড়ানৈপূণ্য প্রদর্শন করেন, এবং দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে তাদের জয়ে বেশ বড়সড় ভূমিকাও রাখেন।

ক্রিশ্চিয়ান পুলিসিচ – যুক্তরাষ্ট্র (Christian Pulisic – USA)

এবারের ফিফা বিশ্বকাপ ২০২২ এ ইতিহাস গড়ার লক্ষ্য নিয়ে হাজারো আমেরিকান সমর্থক পাড়ি জমান কাতারের মরুদ্যানে। তাদের সকলেই চেয়েছিলেন যেন বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ আসরে নিজেদের নামটি স্বর্ণাক্ষরে লিখতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের পুরুষ ফুটবল জাতীয় দলটি। এবং, সেই স্বপ্নের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন ক্যাপ্টেন আমেরিকা খ্যাত চেলসি উইংগার ক্রিশ্চিয়ান পুলিসিচ।

এবারের আসরে তাকে সঙ্গ দিয়েছে তার স্পেশাল এডিশন পুমা আল্ট্রা আলটিমেট বুটস, যা কি না বিশেষভাবে তার নিজস্ব ব্র‍্যান্ডিং ও আমেরিকার পতাকার রঙ এর উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে।

এই বুটজোড়ার লঞ্চিং ইভেন্টে ক্রিশ্চিয়ান পুলিসিচ এর উপস্থিতি বহু প্রত্যাশার ঝড় তুলেছিল। আমেরিকান’রা বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিলেও, গ্রুপ পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ওয়েলস এর বিপক্ষে একমাত্র ও জয়সূচক গোলটি করেন পুলিসিচ, যার ফলে তারা রাউন্ড অব ১৬ তে অগ্রসর হতে সক্ষম হয়। পুলিসিচকে সেক্ষেত্রে নিঃসন্দেহে সাহায্য করেছিল তার পুমা বুটজোড়া। ভবিষ্যতেও হয়তো তাকে পুমা’র বিভিন্ন জুতো পায়ে মাঠে খেলতে দেখা যাবে, তা হোক যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে বা তার ক্লাব চেলসি’র হয়ে।

Share.

Leave A Reply