ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বনাম বায়ার্ন মিউনিখ প্রিভিউ

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড আর বায়ার্ন মিউনিখকে টিএফএক্স চ্যাম্পিয়ন্স লিগের (ইউসিএল) গ্রুপ মেরামত দশম দিনে আগামী। প্রথমগামে নিখুঁতভাবে হারিয়ে হয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড (এক্স4), তাই শেষ চারার জন্য তাদের কেবলমাত্র আশাই থাকছে যে কপেনহাগের এবং গালাতাসারায়ের ম্যাচ ড্র হয়ে যদি তাদের লক্ষে পৌঁছে ফেলতে পারেন।

 

এটা ছড়িয়ে দেয় যেন পড়ে, কারণ আজকাল ইরিক টেন হাগের ব্যক্তিগত ফর্ম খুব উন্নত নেই, তাকে সম্মান দেওয়া যায়নি। যারপরও, তারা তাদের হেভিলি হেভ মাউট দিয়ে চমক করানো হয়েছে অল্ড ট্রাফোর্ডে পাঁচটি ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিতেই অসমাপ্ত হারের সাথে, সর্বশেষভাবে তাঁরাও ৩ বছরে পাঁচটি ম্যাচে ৩ গোলের মাধ্যমে লস্যানো। এছাড়াও তাদরা পাঁচটি ইউসিএল গ্রুপ ম্যাচে তাদের বিপক্ষে ৩+ গোল দিয়েছেন, তাই মানসিকতা চেঞ্ঝ করে এই ম্যাচে লাস্ট ১৬ এ পাঁচটি পৌঁছে নেওয়ার জন্য সম্ভাবনাগুলি দরকার।

 

বায়ার্ন মিউনিখকে শনিবারে এইনট্রাচ্ট ফ্রাঙ্কফুর্টে আপত্তিজনক খেলায় পরাজিত হয়েছে যা ছিল তাঁদের প্রথম ৫-১ হেরানো পরাজয়। হকিংপুকরা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে অগ্রসর লেগেছে তাঁদের, কিন্তু টিম পছন্দ না হওয়ায় বস থমাস টুখেল অনুযায়ী “গুরুত্বপূর্ণ প্রতিক্রিয়া” দরকার তাদের। ম্যানচেস্টারে তাঁদের প্রতিক্রিয়া প্রমাণ করতে তাঁদের লৌহকাঁপ করানো উচিত।

 

বায়ার্ন যুক্তিবাদীদের স্বশক্তির চেয়েও মাত্রই অসামান্য কম্পিটিশন রেকর্ডটি আগামিকালে এডভাংস করার। তাঁরা ৩৯ ম্যাচে কোনও হার নিয়েনি ইউসিএলের গ্রুপ মেরামতে (৩৫ জিত, ৪ ড্র)। এগিয়ে যাই, প্রথম ১৭টি ম্যাচ জিতেছেন তাঁরা গ্রুপ মুঠোফোটবাজির আগে। গতবছর কেপেনহাগের সাথে একদম বেপারটি যদি থাকে বায়ার্ন মিউনিখের জন্য এর মানে হয়ে আসবে যে ১৪ বছরের ব্যাপক সময়ে তাঁরা পৌঁছে আসেনি দুটি ম্যাচ জিতার কথা।

দেখুনি কোন খেলোয়াড়ের দিকগুলি

ইউনাইটেডের স্ট্রাইকার রাসমাস হয়লান্দ যদি এগিয়ে উঠতে পারেন তাঁর দেখতে পাওয়া যেতে পারে ইউসিএলের জন্য উত্তরাধিকার সংখ্যায় (২ টি ফোটা গোল)।

পড়ুন:  ক্রিস্টাল প্যালেস বনাম ম্যানচেস্টার সিটি প্রিভিউ

 

বায়ার্নের ফ্রন্টম্যান হ্যারি কেনের মধ্যে এই উইন জেতানো ম্যাচেও তিনটি মুঠোটবাজি পরাজয় নিয়েছেন, তবে তাঁদের বিপক্ষে ক্যারিয়ারের প্রতিযোগিতায় ৭টি জিতে তিনটি ড্র করেছেন।

 

গরম নম্বর

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বনাম জার্মান প্রতিযোগিতার বিপক্ষে তাঁরা গত ১১টি নিজ বাড়ির ম্যাচে অপরাজিত (৮ জিত, ৩ ড্র)।

 

Share.
Leave A Reply